ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৭

বগুড়ায় ঘুমের ওষুধে না পেরে ফাঁস দিয়ে তরুণীর আত্মহত্যা

https://www.jugantor.com/country-news/179249/বগুড়ায়-ঘুমের-ওষুধে-না-পেরে-ফাঁস-দিয়ে-তরুণীর-আত্মহত্যা
BY  বগুড়া ব্যুরো ১৯ মে ২০১৯, ২১:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ
বগুড়ার ধুনটে বাবা-মার উপর অভিমান করে অনামিকা আকতার রেমি (২২) নামে এক গার্মেন্টস শ্রমিক আত্মহত্যা করেছেন।

পুলিশ রোববার সকালে উপজেলার বেড়েরবাড়ি গ্রামের বাড়ির শয়ন ঘর থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। এর আগেও তিনি ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

নিহত অনামিকা আকতার রেমি ধুনট উপজেলার নিমগাছী ইউনিয়নের বেড়েরবাড়ি গ্রামের কৃষক আবদুল হামিদের মেয়ে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, সংসারে অভাবের কারণে রেমি প্রায় চার বছর আগে বাবা-মাকে না জানিয়ে ঢাকার একটি পোশাক কারখানায় শ্রমিকের চাকরি নেন। তিনি এক সপ্তাহ আগে বাড়িতে আসেন। বাবা-মা তাকে চাকরি না করতে বলেন। এ নিয়ে তাদের সঙ্গে রেমির বাকবিতণ্ডা হয়।

ক্ষিপ্ত হয়ে রেমি অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ সেবন করলে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে রেমি শনিবার হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেন। রাতেই শয়ন ঘরের ছাদের তীরের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

ধুনট থানার এসআই শরিফুল ইসলাম জানান, গার্মেন্টস্ শ্রমিক রেমির লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শজিমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা হয়েছে।