ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৭

নরসিংদীতে ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা

https://www.jugantor.com/country-news/219424/নরসিংদীতে-ব্যবসায়ীকে-প্রকাশ্যে-কুপিয়ে-হত্যা
BY  নরসিংদী প্রতিনিধি ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:৫২ | অনলাইন সংস্করণ
ছবি: যুগান্তর নরসিংদীতে ডিশ ব্যবসা নিয়ে দ্বন্দ্বে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে প্রকাশ্যে এক ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের নাম রুহুল আমিন (২২)।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার সঙ্গিতা জবা মিল এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত রুহুল আমিন সঙ্গিতা এলাকার বিল্লাল মিয়ার ছেলে। তিনি রঙের ব্যবসা করতেন।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, সঙ্গিতা এলাকায় ডিশ ব্যবসা করে আসছিলেন স্থানীয় সারোয়ার হোসেনের ছেলে তানজিল ও ছোটন।

সম্প্রতি নিহত রুহুল তার নিজ এলাকায় ডিশ ব্যবসা করতে চেয়েছেন। সেই অনুসারে রুহুল চার শতাধিক ডিশ লাইন দেয়ার কথা জানিয়েছিলেন তানজিলকে।

এ নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব তৈরি হয়। এরই জের ধরে বুধবার বেলা ১১টার দিকে তানজিল হৃদয়, ছোটন ও মনির নিহত রুহুলকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়।

পরে জবা টেক্সটাইল মিলসংলগ্ন একটি মাঠে নিয়ে যায়। পরে কিছু বুঝে ওঠার আগেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে রুহুলকে এলোপাতাড়ি কোপানো হয়। এ সময় রুহুল মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

পরে তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোক এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে জেলা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের ভাবি সাথী বলেন, রুহুল বাড়িতেই ছিল। তারা বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। একটু পর তার মৃত্যুর খবর পাই। আমরা সন্ত্রাসীদের বিচার চাই।

নিহতের ভাই শরিফুল বলেন, ছোটনের সঙ্গে রুহুলের পার্টনারে ব্যবসা ছিল। কিন্তু ছোটন রুহুলকে কোনো লাভ দিত না। ও একাই সব করতে চেয়েছে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

এর জের ধরে তানজিল হৃদয়, ছোটন ও মনির আমার ভাই রুহুলকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে।

সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সালাউদ্দিন বলেন, মূলত নিহত রুহুল ডিশ ব্যবসায় পার্টনার হতে চেয়েছিল। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব তৈরি হয়। এরই জেরে তাকে হত্যা করা হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।