ঢাকা, শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

মাদ্রাসা শিক্ষকদের ঘরে ফিরতে শিক্ষামন্ত্রীর অনুরোধ

https://www.ntvbd.com/bangladesh/176429/মাদ্রাসা-শিক্ষকদের-ঘরে-ফিরতে-শিক্ষামন্ত্রীর-অনুরোধ
BYনিজস্ব প্রতিবেদক
১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৭:৪৩

আজ রোববার সচিবালয়ে আন্দোলনরত ইবতেদায়ী মাদ্রাসার শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক করে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। ছবি : এনটিভি আন্দোলনরত বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার শিক্ষকদের ঘরে ফিরে যেতে অনুরোধ জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

আজ রোববার কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের অফিসকক্ষে আন্দোলনরত বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষকদের দাবির বিষয়ে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আন্দোলনরত শিক্ষকদের দাবির বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। মন্ত্রী জানান, চলমান সংকট নিরসনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সক্রিয় প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। শিগগিরই বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে জানানো হবে। সভার সিদ্ধান্ত ও আলোচনার বিষয়বস্তু জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আমরণ অনশনরত মাদ্রাসার শিক্ষকদের জানাতে বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির সভাপতি কাজী রুহুল আমিন চৌধুরী ও মহাসচিব কাজী মোখলেছুর রহমানকে অনুরোধ করেন শিক্ষামন্ত্রী। সেইসঙ্গে তাঁদের সবাইকে ঘরে ফিরে যাওয়ারও অনুরোধ করেন তিনি। এই তীব্র শীতের মধ্যে আর কষ্ট না করার আহ্বান জানিয়ে নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘আপনাদের দাবি ও সমস্যা যথাযথভাবে আমরা প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরবো। আপনারা ঘরে ফিরে যান।’ মন্ত্রীর প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে দুই শিক্ষক নেতা বলেন, সারা দেশের শিক্ষক প্রতিনিধিরা যেহেতু অনশনে আছে, সেখান থেকে ২০ জনের একটি প্রতিনিধিদলের সামনে এই প্রস্তাব তুলে ধরলে ভালো হয়। তাঁদের কথা অনুযায়ী বিকাল ৩ টায় আবার ২০ জন শিক্ষক মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন। তাঁদেরকেও ঘরে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ জানান শিক্ষামন্ত্রী। সেইসঙ্গে তাঁদের দাবির বিষয়ে শিগগিরই প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর কাছে যথাযথভাবে তুলে ধরার আশ্বাস দেন। সভায় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা সচিব মো. আলমগীর, অতিরিক্ত সচিব এ কে এম জাকির হোসেন ভূঁইয়া, অশোক কুমার বিশ্বাস ও রওনক মাহমুদ, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. বিল্লাল হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অন্যদিকে টানা ষষ্ঠ দিনের মতো অনশনে আজো অসুস্থ হয়ে পড়া কয়েকজন শিক্ষককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।