ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৬

সম্পত্তি নিয়ে করা এক দেওয়ানি মামলায় হাইকোর্টের এক বিচারপতি ১৬ ডিসেম্বর রায় দিয়েছেন—এমন তথ্য আপিল আদালতের নজরে এসেছে। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে এক লিভ টু আপিলের শুনানিতে বিষয়টি আদালতের নজরে আসে।

আজ রোববার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বিভাগ আবেদনের ওপর ২৪ মে আদেশের জন্য দিন রেখেছেন।

আদালতে লিভ টু আপিলকারী জোহরা খানমের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী মো. ওয়াজি উল্লাহ। এ সময় উপস্থিত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের বক্তব্যও শোনেন আদালত।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম প্রথম আলোকে বলেন, লিভ টু আপিলের শুনানিতে আবেদনকারীর আইনজীবী জানান, হাইকোর্টের বিচারপতি ১৬ ডিসেম্বর রায় দিয়েছেন, ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের দিনে রায় হতে পারে না। আদালতে বলেছি, বিচারকদের বিচারকাজে সততা, দক্ষতা ও স্বচ্ছতা বজায় রাখতে এ বিষয়ে আপিল বিভাগ নির্দেশনা দিতে পারেন।

লিভ টু আপিলকারীর আইনজীবী মো. ওয়াজি উল্লাহ প্রথম আলোকে বলেন, বগুড়া সদরে অবস্থিত একটি সম্পত্তি নিয়ে এক হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন খাজা জয়নুল হক। এই মামলায় বিবাদী জোহরা খানম হাইকোর্টে হেরে যান। ২০১৫ সালের ১৬ ডিসেম্বর হাইকোর্টের তৎকালীন বিচারপতি মো. মিজানুর রহমান ভূঞা (বর্তমানে অবসরপ্রাপ্ত) ওই রায় দেন। আপিল বিভাগ নথি তলব করেছিলেন। দেখা যায়, ১৬ ডিসেম্বর বিচারপতি রায় দিয়েছেন। অথচ ১৬ ডিসেম্বর রায় দেওয়ার সুযোগ নেই, কেননা ১৬ ডিসেম্বর ছুটি।