ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৬

ফেসবুকে পরিচয়, প্রেম, অতঃপর বাধ্য হয়ে বিয়ে করে প্রতারণার শিকার সেই মেয়েটিকে তাঁর বড় ভাইয়ের কাছে তুলে দিয়েছে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানা-পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াজেদ আলী ওই মেয়েটিকে বড় ভাইয়ের কাছে তুলে দেন।

মেয়েটিকে ভাইয়ের হাতে তুলে দিতে সহায়তা করেন শামীম আহমেদ নামের এক ব্যাংকার। মেয়েটি বিপাকে পড়ার পর থেকেই তাঁর দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন শামীম। এ জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানায় যাত্রাবাড়ী থানা-পুলিশ। চেতনানাশক কিছু খাওয়ানোর অভিযোগে রাতেই মেয়েটি বাদী হয়ে ওই থানায় তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মামলা শেষে বড় ভাইয়ের সঙ্গে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন তিনি।

প্রেমের টানে মেয়েটি একা কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামে ছুটে যায়। ঘটনাচক্রে গত ২৭ নভেম্বর দুপুরের পর রাজধানীর সায়েদাবাদে শ্যামলী বাস কাউন্টারে মেয়েটিকে পাওয়া যায়। মেয়েটি প্রায় অচেতন অবস্থায় ছিলেন। এভাবেই সেদিন মেয়েটিকে উদ্ধারের বর্ণনা দিয়েছিলেন যাত্রাবাড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ জহুরুল ইসলাম।

আরও পড়ুন...ফেসবুকে পরিচয়, প্রেম, অতঃপর...