ঢাকা, সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩ পৌষ ১৪২৬
BYমৌলভীবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশ:  ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:৪৩

জেলার কুলাউড়া উপজেলার শরিফপুর সীমান্তবর্তী এলাকায় বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিবি) ও ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) এর মধ্যে সেক্টর কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সন্ধ্যায় এক প্রেস ব্রিফিংকালে দুই দেশের সীমান্তের বিভিন্ন সমস্যাদি নিয়ে আলোচনাও হয়।

ভারতীয় হেলিকপ্টার অবৈধভাবে শূন্যরেখা অতিক্রম করে বাংলাদেশে প্রবেশ, অবৈধভাবে সীমান্ত রেখা পারাপার, হবিগঞ্জ জেলায় আটককৃত ৫ ভারতীয় নাগরিককে ভারতে হস্তান্তর, সীমান্তে চোরাচালান ও মাদক প্রতিরোধসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার জন্য জেলার কুলাউড়া উপজেলার চাতলাপুর সীমান্তে বিজিবি ও বিএসএফের সেক্টর কমান্ডার পর্যায়ে আনুষ্ঠানিক পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বেলা দেড়টা পর্যন্ত উপজেলার চাতলাপুর চা-বাগান বাংলোতে এ পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ শ্রীমঙ্গল সেক্টরের ব্যবস্থাপনায় সেক্টর কমান্ডার শ্রীমঙ্গল এবং ভারতের বিএসএফ তেলিয়ামুড়া ও পানিসাগর সেক্টরের মধ্যে এ আনুষ্ঠানিক পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ পতাকা বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব¡ দেন বিজিবি শ্রীমঙ্গল সেক্টর কমান্ডার কর্নেল মো. জাহিদ হাসান ও নবাগত সেক্টর কমান্ডার মো. জোবায়ের হাসনাৎ।

বিএসএফের পক্ষে নেতৃত্ব দেন তেলিয়ামুড়া ও পানি সাগর সেক্টরের ডিআইজি যথাক্রমে শ্রী ববি জোসেফ ও শ্রী সিন্দু কুমার। বৈঠক শেষে বিজিবি ও বিএসএফের সেক্টর কমান্ডাররা আলোচনার সিদ্ধান্তপত্রে স্বাক্ষর করেন।

পতাকা বৈঠক শেষে বিকাল ৫টায় যৌথ প্রেস ব্রিফিংকালে বলা হয় পতাকা বৈঠকে দুই দেশের সীমান্তের বিভিন্ন সমস্যাদি নিয়ে আলোচনা হয়। উভয়পক্ষ সীমান্ত রেখায় অবৈধভাবে অতিক্রম করার বিরুদ্ধে যৌথভাবে নজরদারি আরও বাড়ানোর বিষয়ে একমত হন। উভয় দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে সৌহার্দপ‚র্ণ সম্পর্ক বজায় রাখার লক্ষ্যে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করার ব্যাপারে একমত হন।

বৈঠকে বিজিবির পক্ষে অবৈধভাবে সীমান্ত পারাপার, ভারতীয় হেলিকপ্টার অবৈধভাবে শূন্যরেখা অতিক্রম করে বাংলাদেশে প্রবেশ, হবিগঞ্জ জেলায় আটককৃত ৫ ভারতীয় নাগরিককে ভারতের কাছে হস্তান্তর, ভারত হতে চোরাচালানির মাধ্যমে গরু, মদ, গাজা ও বিভিন্ন নেশাজাতীয় ট্যাবলেট বাংলাদেশে প্রবেশ বন্ধ করার ব্যাপারে বিএসএফ কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

এছাড়া ভারত-বাংলাদেশের সীমান্তের অমীমাংসিত বিষয়সমূহ দ্রæত সমাধান করা এবং উভয় দেশের সীমান্তে বসবাসকারী জনগণের জীবনের নিরাপত্তা প্রদান নিশ্চিতকরণের বিষয়ে আলোচনা হয়। বন্যা প্রতিরোধে মনু ধলাই নদের সীমান্ত এলাকার প্রতিরক্ষা বাঁধের উন্নয়নে উভয়পক্ষ আলোচনাক্রমে করার মতামত ব্যক্ত করেন।

বিজিবি-বিএসএফের মধ্যে সুসম্পর্ক রক্ষায় অচিরেই উভয় অংশে খেলাধুলার আয়োজন করা হবে বলেও বিএসএফ কর্তৃপক্ষ জানান।

পতাকা বৈঠকে বিজিবি ও বিএসএফের সংশ্লিষ্ট ব্যাটালিয়নসমূহের অধিনায়কগন এবং সংশ্লিষ্ট সেক্টর ও ব্যাটেলিয়নের স্টাফ অধিনায়কগণ উপস্থিত ছিলেন।