ঢাকা, সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮, ৭ কার্তিক ১৪২৬

পুলিশের হেফাজতে মৃত্যুর অভিযোগ

http://www.rtvonline.com/country/31133/পুলিশের-হেফাজতে-মৃত্যুর-অভিযোগ
BYজামালপুর প্রতিনিধি|  ১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:৩০ | আপডেট : ১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:৪০

জামালপুরে গোয়েন্দা পুলিশের হেফাজতে নাজিম উদ্দিন শিকদার(৫৯) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। নিহতের পরিবারের দাবি পুলিশি নির্যাতনে নাজিম উদ্দিনের মৃত্য হয়েছে। তবে গোয়েন্দা পুলিশের দাবি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন নাজিম।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, নাজিম উদ্দিন শিকদার টাঙ্গাইলের সদর উপজেলার শালিনা গ্রামের মৃত আজিম উদ্দিন শিকদারের ছেলে। তিনি টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের প্রসেসর সার্ভার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

-------------------------------------------------------- আরও পড়ুন:শিশু ধর্ষণ-হত্যার প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশের গুলি, নিহত ২ --------------------------------------------------------

জামালপুর গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সালেমুজ্জামান জানান, সরিষাবাড়ি উপজেলার বয়ড়া বাজার এলাকায় জুয়া খেলা চলছিল। এ অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার দিনগত রাত আড়াইটায় পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জুয়াড়িরা দৌঁড়ে পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে ১২ জনকে আটক করা হয়। এ সময় নাজিম উদ্দিন দৌঁড়ে পালিয়ে যাবার সময় পড়ে গিয়ে আহত হন। স্থানীয়দের সহায়তায় গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ভোর পৌনে ৫ টায় জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে, কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. হাসানুল বারী শিশির তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

মৃত নাজিম উদ্দিনের ছোট ভাই আব্দুল কাদের জানান, গেলো শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টায় টাঙ্গাইলের বাসা থেকে জামালপুরে বেড়াতে আসার কথা বলে নাজিম বের হন। সকালে চাচাতো ভাই সায়েমের কাছ থেকে মোবাইলের মাধ্যমে বড় ভাইয়ের গ্রেপ্তার হওয়ার খবর পান। পরে তারা জামালপুরে আসেন। গোয়েন্দা কার্যালয়ে খোঁজ নিতে গেলে প্রথমে আটকের কথা অস্বীকার করেন কর্মকর্তারা। পরবর্তীতে সন্দেহ বশত জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে ভাইয়ে লাশ শনাক্ত করেন তারা।

তিনি অভিযোগ করেন, ভাইয়ের গালে আঘাতের চিহ্ন ছিল। গোয়েন্দা পুলিশের নির্যাতনে নাজিম উদ্দিনের মৃত্যু হয়েছে। কারণ তিনি অসুস্থ্য হলে সরিষাবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কেন নিয়ে যাওয়া হলো না ? এজন্য নিহতের পরিবার এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।

পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সালেমুজ্জামান জানান, নাজিম উদ্দিনকে দৌঁড়ে পালানোর সময় পড়ে গিয়ে শরীরে আঘাত পান। তাই উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়েছিলো।

আরও পড়ুন

জেএইচ