ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৬

রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে একই পরিবারের ৪ জনসহ নিহত ১০ (ভিডিও)

http://www.rtvonline.com/country/43816/রাঙামাটিতে-পাহাড়-ধসে-একই-পরিবারের-৪-জনসহ-নিহত-১০
BYরাঙামাটি প্রতিনিধি|  ১২ জুন ২০১৮, ১২:৩৭ | আপডেট : ১২ জুন ২০১৮, ১৪:২৬

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় টানা বর্ষণে পাহাড় ধসে মা-ছেলেসহ ১০ জন নিহত হয়েছেন। বেশ কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছেন। সোমবার মধ্যরাত থেকে মঙ্গলবার ভোরের দিকে নানিয়ারচর উপজেলার তিনটি স্থানে পাহাড় ধসে এই মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কোয়ালিটি চাকমা জানান, পাহাড় ধসে উপজেলার বুড়িঘাট ইউনিয়নের ধর্মচরণ কার্বারিপাড়ায় একই পরিবারের চারজন, সাবেক্ষং ইউনিয়নের বড়কুল পাড়ায় চারজন ও ঘিলাছড়ি ইউনিয়নের হাতিমারায় দু’জন নিহত হয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে আটজনের নাম-পরিচয় জানা গেছে। তারা হলেন- উপজেলার বুড়িঘাট ইউনিয়নের ধর্মচরণ কার্বারিপাড়ার স্মৃতি চাকমা (২৩), তার ছেলে আয়ুব দেওয়ান (দেড় মাস), ইতি দেওয়ান (১৯), ফুলজীবী চাকমা (৫৫); সাবেক্ষং ইউনিয়নের বড়কূলপাড়ার সুরেন্দ্র লাল চাকমা (৫৫), তার স্ত্রী রাজ্য দেবী চাকমা (৫০), মেয়ে সোনালী চাকমা (১৩) ও রোমেন চাকমা (১৪)। তবে ঘিলাছড়ি ইউনিয়নের হাতিমারা গ্রামের হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার রাত ১২টার দিকে বুড়িঘাট ইউনিয়নের ধরমপাশা কার্বারিপাড়ার একটি পরিবার মাটিচাপা পড়ে। এতে চারজনের মৃত্যু হয়। এছাড়া বাকী ঘটনাগুলো ভোরের দিকে ঘটে বলে জানান স্থানীয়রা।

নানিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ জানিয়েছেন, উপজেলার তিনটি স্থানে পাহাড় ধসে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়েছে ঘটনাস্থলে। এখনই বিস্তারিত কিছুই বলা সম্ভব নয়। বৃষ্টির জন্য উদ্ধার কাজে বেগ পেতে হচ্ছে বলে জানান তিনি।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ জানান, পাহাড় ধসের মৃত্যুর খবর আমরাও পেয়েছি। উদ্ধারকাজ চলছে। তবে এখনো পর্যন্ত কতজন মারা গেছে তা নিশ্চিত করে বলা যাবে না।

রাঙামাটির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র জানিয়েছে, গতকাল সোমবার ভোর ছয়টা থেকে মঙ্গলবার ভোর ছয়টা পর্যন্ত জেলায় ২৫৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

এর আগে গেলো বছরের ১৩ জুন ভারী বর্ষণে রাঙামাটির বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ধসে ১২০ জন নিহত হন।

জেএইচ