ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

সামিটের সঙ্গে মিটসুবিসি এবং জেনারেল ইলেকট্রিকের চুক্তি

http://www.dhakatimes24.com/2018/07/12/88580/সামিটের-সঙ্গে-মিটসুবিসি-এবং-জেনারেল-ইলেকট্রিকের-চুক্তি
BYশেখ সাইফ, ঢাকাটাইমস

দেশে দুই হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যে মিটসুবিসি এবং জেনারেল ইলেকট্রিকের (জিই) সঙ্গে চুক্তি সই করেছে দেশীয় শিল্প গ্রুপ সামিট করপোরেশন।

গতকাল বুধবার সকালে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে এই চুক্তি সই হয়। জয়েন্ট ভেঞ্চারে সমঝোতা চুক্তি সই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী এবং বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

সামিট এই মূহুর্তে ১৪টি প্ল্যান্ট থেকে ১৪৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে, যা দেশের মোট উৎপাদনের ১৫ ভাগেরও বেশি।

সম্প্রতি একটি বিনিয়োগ সম্মেলনে সামিট করপোরেশনের চেয়ারম্যান আজিজ খান বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে তিন বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করার ঘোষণা দিয়েছিলেন। এই চুক্তির মাধ্যমে সেই ঘোষণা বাস্তবে পরিণত করলেন তিনি।

গতকালের অনুষ্ঠানে আজিজ খান বলেন, ‘বাংলাদেশের এসব বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রগুলো হবে অত্যন্ত আধুনিক মানের। আর প্রাইভেট সেক্টরে এতো বড় কাজ করতে পেরে আমরা আনন্দিত। সরকারের সহযোগিতায় ভিশন ২০২১ এবং ২০৩০ এর অংশ হিসেবে এমন কাজ করতে পেরে আমরা সরকারের কাছে কৃতজ্ঞ।’

সামিট গ্রুপের চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশ আদিকাল থেকেই খুবই সম্ভাবনাময় একটা দেশ। এই দেশে বর্তমানে যে হারে প্রযুক্তির বিকাশ ঘটছে তাতে অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশ অনন্য উচ্চতায় প্রবেশ করবে।

অনুষ্ঠানে তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশের ইতিহাসে এতো বড় বিনিয়োগ দেশের জন্য অনেক বড় সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন করলো। আমরা চাই এ ধরনের কাজে আরও প্রাইভেট সেক্টর এগিয়ে আসুক। আমাদের দেশের ইঞ্জিনিয়াররাও এখন অনেক ভালো করছেন। এটা আমাদের একটা বড় প্রাপ্তি। তরুণ সমাজ এগিয়ে আসছে, তারই এ দেশকে আরও সমৃদ্ধ করবে।’

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, ‘৪৫ বছরের ইতিহাসে এ চুক্তিই বাংলাদেশের প্রাইভেট সেক্টরে সব থেকে বড় বিনিয়োগের চুক্তি। বর্তমানে আমাদের ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুতের প্রয়োজন। এ চুক্তি বাস্তবায়িত হলে আমরা দুই হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত দেশেই পাবো। আশা করি খুব শিগগিরই পাওয়ার ও এনার্জি সেক্টরে বড় পরিবর্তন আসবে।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, জিই পাওয়ারের প্রেসিডেন্ট এন্ড সিইও রাসেল স্টোকস এবং মিতসুবিশি কর্পোরেশনের ইনফ্রাস্ট্রাকচার বিজনেস ডিভিশনের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট তেতসুজি নাকাগাওয়া।

ঢাকাটাইমস/১২জুলাই/এসএস/এমআর