ঢাকা, সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

পতনের বাজারে শতকোটি টাকা মূলধন ফিরে পেল ডিএসই

https://www.jagonews24.com/economy/news/463583
BYনিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: ০২:৫৪ পিএম, ১৬ নভেম্বর ২০১৮

দেশের শেয়ারবাজারে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস (বৃহস্পতিবার) শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮১ হাজার ৩৩৯ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৩ লাখ ৮১ হাজার ২২২ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন রেড়েছে ১১৭ কোটি টাকা।

এদিকে গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ১৪ দশমিক ৪৯ পয়েন্ট বা দশমিক ২৮ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি বাড়ে দশমিক ৬৪ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য এক শতাংশ।

এছাড়া অপর দুটি সূচকের মধ্যে গত সপ্তাহে ডিএসই-৩০ আগের সপ্তাহের তুলনায় কমেছে ২ দশমিক ৯৮ পয়েন্ট বা দশমিক ১৬ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে দাঁড়িয়েছিল ৬ দশমিক ২৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৪ শতাংশে।

আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক কমেছে ২ দশমিক ৩৫ পয়েন্ট বা দশমিক ১৯ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ৫ দশমিক ৫৯ পয়েন্ট বা দশমিক ৪৬ শতাংশ।

গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৪৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে ১৪৩টির দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ১৮৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টি শেয়ারের দাম।

সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৫৫২ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৫১৯ কোটি ১৫ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ৩৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা বা ৬ দশমিক ৫১ শতাংশ।

আর গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৭৬৪ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ২ হাজার ৫৯৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন বেড়েছে ১৬৯ কোটি ৪ লাখ টাকা বা ৬ দশমিক ৫১ শতাংশ।

গত সপ্তাহে মোট লেনদেনের ৭৯ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশই ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের দখলে। এছাড়া বাকি ৪ দশমিক ৯৬ শতাংশ ‘বি’ ক্যাটাগরিভুক্ত, ১২ দশমিক ৩৩ শতাংশ ‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের এবং ৩ দশমিক ৬৫ শতাংশ ‘জেড’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের শেয়ার। কোম্পানিটির ১৩৭ কোটি ২১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা সপ্তাহজুড়ে হওয়া মোট লেনদেনের ৪ দশমিক ৯৬ শতাংশ।

দ্বিতীয় স্থানে থাকা খুলনা পাওয়ার কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৩৬ কোটি ৬৮ লাখ টাকা, যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের ৪ দশমিক ৯৪ শতাংশ। ১১১ কোটি ৭২ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে এসকে ট্রিমস। লেনদেনে এরপর রয়েছে- ইফাদ অটোস, সায়হাম কটন, ইনটেক লিমিটেড, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, মুন্নু সিরামিক, বিবিএস কেবলস এবং পেনিনসুলা চিটাগাং।

এমএএস/আরএস/এমএস