ঢাকা, রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৭

অ্যাকাউন্ট খুলতে ডিজিটাল নিবন্ধন ব্যবস্থা চালু করল বিকাশ

https://www.ntvbd.com/economy/265877/অ্যাকাউন্ট-খুলতে-ডিজিটাল-নিবন্ধন-ব্যবস্থা-চালু-করল-বিকাশ
BYনিজস্ব প্রতিবেদক
০৮ আগস্ট ২০১৯, ১৯:০৬

এখন থেকে তাৎক্ষণিকভাবেই খোলা যাবে বিকাশ অ্যাকাউন্ট। ই-কেওয়াইসির (ইলেক্ট্রনিক-নো ইয়োর কাস্টমার) মাধ্যমে গ্রাহকের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) স্ক্যান করে এবং ছবি তুলে কয়েক মিনিটের মধ্যেই নতুন অ্যাকাউন্ট খোলা যাচ্ছে এই পেপার-লেস ডিজিটাল নিবন্ধন পদ্ধতিতে।

এ পদ্ধতিতে অ্যাকাউন্ট খোলার সময় তাৎক্ষণিকভাবে গ্রাহকের তথ্যের সঙ্গে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের এনআইডি ডাটাবেজে রাখা তথ্যের সত্যতা যাচাই (ভেরিফাই) করেই নতুন বিকাশ অ্যাকাউন্ট নিবন্ধন এবং এর সব সেবা ব্যবহার করা সম্ভব হচ্ছে। এভাবে ই-কেওয়াইসি দিয়ে ঝামেলাহীন, দ্রুত এবং ভেরিফাইড অ্যাকাউন্ট খুলে গ্রাহক এবং বিকাশ উভয়েরই যেমন সময়ের সাশ্রয় হচ্ছে, তেমনি অ্যাকাউন্টগুলোর নিরাপত্তা আরো সুদৃঢ় হচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকাশের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, গত ১০ জুলাই চালু হওয়ার পরে বর্তমানে সারা দেশে ২৬ হাজার এজেন্ট, প্রায় ৩০০টির মতো বিকাশ কেয়ার, বিকাশ সেন্টার এবং ডিস্ট্রিবিউটর অ্যাকুইজেশন ম্যানেজারের কাছে ই-কেওয়াইসির মাধ্যমে নতুন অ্যাকাউন্ট খোলার সুবিধা নেওয়া যাচ্ছে।

এই পদ্ধতিতে অ্যাকাউন্ট খুলতে গ্রাহকের এনআইডি কার্ড থেকে অপটিক্যাল ক্যারেক্টার রিডার (ওসিআর) পদ্ধতির মাধ্যমে সরাসরি তথ্য সন্নিবেশিত করা হচ্ছে। পরবর্তী ধাপে মোবাইল থেকেই সরাসরি গ্রাহকের ছবি তোলা হচ্ছে এবং ফেস ডিটেকশন প্রযুক্তির মাধ্যমে ছবি মিলিয়ে পরবর্তী ধাপে যাওয়া হচ্ছে। সন্নিবেশিত তথ্য ও ছবি তাৎক্ষণিকভাবে নির্বাচন কমিশন ডাটাবেজে রক্ষিত তথ্যের সঙ্গে যাচাই (ভেরিফাই) করেই কয়েক মিনিটের মধ্যেই বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলা সম্ভব হচ্ছে। প্রতিটি অ্যাকাউন্ট সফলভাবে খোলার পর গ্রাহক এবং যিনি অ্যাকাউন্ট খুলে দিচ্ছেন উভয়ই নিশ্চিতকরণ মেসেজ পাচ্ছেন।

ই-কেওয়াইসির মাধ্যমে তথ্য নেওয়ায় সমৃদ্ধ হচ্ছে বিকাশের গ্রাহক ডাটাবেজ। চীনের আলিবাবাসহ অনেক দেশের মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ই-কেওয়াইসি নিবন্ধন সুবিধা কাজে লাগিয়ে নানা ধরনের উন্নত সেবা চালু করেছে।

ই-কেওয়াইসি সুবিধা ব্যবহার করে গ্রাহকের জন্য আরো বেশি নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং ক্ষুদ্রঋণ, ইন্স্যুরেন্সের মতো আরো অগ্রসর সেবা দেওয়া সম্ভব। এ ছাড়া গ্রাহক সেবা বা রেগুলেটরি কর্মকাণ্ডের যেকোনো প্রয়োজনে রিয়েল-টাইমে গ্রাহকের তথ্য ব্যবহার করাও সহজ।

এ পর্যায়ে এজেন্ট, ডিস্ট্রিবিউটর, বিকাশ কেয়ার ও বিকাশ সেন্টারে গিয়ে ই-কেওয়াইসি নিবন্ধন প্রক্রিয়া চালু হলেও খুব শিগগিরই গ্রাহক পর্যায়ে এই সেবা চালু করার পরিকল্পনা করছে বিকাশ। সেক্ষেত্রে গ্রাহকরা নিজেদের অ্যাকাউন্ট নিজেরাই খোলার সুযোগ পাবে।