ঢাকা, সোমবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৮, ৯ মাঘ ১৪২৫

‘প্যানিক’ না ছড়াতে এনবিআরকে এফবিসিআইয়ের পরামর্শ

http://www.pbd.news/lead-news/32188/প্যানিক-না-ছড়াতে-এনবিআরকে-এফবিসিআইয়ের-পরামর্শ
BYনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ:  ১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ২২:৩৮ | আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:৫২
প্রিন্ট রাজস্ব আদায় করতে গিয়ে প্যানিক (আতঙ্ক) ছড়ায়- এমন কোনো পদক্ষেপ না নিতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআরকে অনুরোধ করেছে ব্যবসায়ীদের সংগঠন এফবিসিসিআই।   শনিবার বিকালে মতিঝিলের চেম্বার কার্যালয়ে এক আলোচনায় এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন এ কথা বলেন।   মহিউদ্দিন বলেন, এনবিআরের পক্ষ থেকে এমন কোন পোগ্রাম নেয়া ঠিক হবে না যা প্যানিক সৃষ্টি করে। অবশ্যই নতুন কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণের আগে যেন স্টেক হোল্ডারদের সাথে আলোচনা করা হয়।   অনুষ্ঠানে এক ব্যবসায়ী প্রতিনিধি জানান, কর অঞ্চল ৭ এর পক্ষ থেকে ক্রাশ পোগ্রাম জরিপ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে অঞ্চলের অধিভুক্ত এলাকায় আয়কর সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। জানতে চাওয়া হচ্ছে আয়ের উৎসও। করযোগ্য আয় থাকলে কেন কর দেয়া হচ্ছে না, সে বিষয়েও জবাবহিদি চাওয়া হচ্ছে। এতে অনেকেই আতঙ্কিত হয়ে পড়ছে।   ওই ব্যবসায়ীর এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে এফবিবসিআই সভাপতি বলেন, গত বাজেটে এনবিআর ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে বড় মত বিরোধী সৃষ্টি হয়। সেটা নিরসনে এনবিআর বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। আমাদের মধ্যে যাতে আর কোন মব বিরোধ সৃষ্টি না হয় তা লক্ষ্য রাখতে হবে। আমদের সঙ্গে আলোচনা করে এনবিআর কোনো পদক্ষেপ নিলে আমরাও তাদের সহায়তা করব। আলোচনা না করে কোনো পদেক্ষেপ নিলে অনেক সময় ভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। রুট লেবেলে সমস্যা হয়।   এই ব্যবসায়ী নেতা বলেন, অনেক এজেন্সি আছে, যার মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা হয়রানির স্বীকার হয়। বিশেষত ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা।   অনুষ্ঠানে এফবিসিআইয়ের ২৫ টি অঙ্গ সংগঠন তাদের নানা সমস্যা আর প্রতিবন্ধকতার কথা তুলে ধরে।   একটি সংগঠনের প্রতিনিধি জানান, বিমানের টিকেট কেনাবেচায় কিছু বিদেশি অ্যাপ ব্যবহৃত হয়। এসব অ্যাপ ব্যবহার করে যে টিকেট কাটা হচ্ছে এতে সরকার কোনো রাজস্ব পাচ্ছে না। অথচ যে টিকেট আমরা ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করি তারা বিক্রি করছে ২০ হাজার টাকায়। ট্যাক্স না দেয়ায় এটা সম্ভব হচ্ছে।   ব্যবসায়ী আরেকটি সংগঠনের প্রতিনিধি বলেন, শিসা আমারা বিদেশ থেকে আমদানি করছি। অথচ একই শিসা ভারতে রপ্তানি হচ্ছে। এটি খতিয়ে দেখা দরকার।   আর বাংলাদেশ বিউটিপার্লার ওনার্স এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে নারীদের বিউটিপার্লারে যেন এনবিআরের নারী প্রতিনিধি পাঠাতে এনবিআরের পক্ষ থেকে দাবি জানানো হয়।   এগ্রিকালচারাল মেশিনারি ম্যানুফ্যাকচারার্স এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে কৃষি যন্ত্রপাতি আমদানিতে ভ্যাট ও ট্যাক্স মকুফের আবেদন করা হয়।   বাংলাদেশ বুটিক হাউস ওনার্স এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য বাণিজ্য মেলাসহ বিভিন্ন মেলায় আলাদা স্টল বরাদ্দের দাবি জানানো হয়।   বিভিন্ন প্রশ্ন আর অভিযোগের উত্তর দিতে গিয়ে এনবিআরের ভ্যটনীতির প্রথম সচিব হাসান মো. তারেক রিকাবদার বলেন, এখানে যে বিষয়গুলো উঠে এসেছে সেগুলো এনবিআর চেয়ারম্যানের সামনে তুলে ধরা হবে। আশা করি নারীদের বিউটিপার্লোরে এনবিআরের নারী সদস্যই পাঠানো হবে।   কৃষি যন্ত্রপাতি আমদানির ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দেয়ার জন্য আহ্বান জানান এই এনবিআর কর্মকর্তা।   আর আয়কর আদায়ে ক্র্যাস প্রোগামের সম্পর্কে তারেক রিকাবদার বলেন, বিষয়টি এনবিআর চেয়ারম্যানের কাছে জানানো হবে।   এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, সমুদ্র বন্দর নিয়ে আমাদের সমস্যা রয়েছে। কাঠামোগত সমস্যা রয়েছে। আর এই সময়টিতেই ব্যবসায়িক পরিবেশ উন্নয়ন সূচক ইজ অব ডুয়িং বিজনেসে বাংলাদেশের অবস্থানন ১৭৬ থেকে ১৭৭ নেমে গেছে। আজ যেসব সমস্যা নিয়ে আমাদের আলোচনা হয়েছে তা সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে তুলে ধরব।   এফবিসিআইয়ের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, সহ-সভাপতি মুনতাকিম আশরাফ প্রমুখ এ সময় বক্তব্য রাখেন। বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিনিধি ছাড়াও ঢাকা ওয়াসা ও পুলিশ বাহিনীর প্রতিনিধিরাও এতে উপস্থিত ছিলেন।