ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৮ কার্তিক ১৪২৭

চামড়া শিল্পে বাংলাদেশ এলডব্লিউজি সনদ অর্জন করবে

https://www.ppbd.news/whole-country/126466
BYনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ:  ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৮:১১

আগামি বছরের শুরুর দিকে দেশের চামড়া শিল্প লেদার ওয়ার্কিং গ্রুপের (এলডব্লিউজি) সনদ অর্জন করতে সক্ষম হবে আশা করছে শিল্প মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সাভার শিল্প নগরীর সম্মেলন কক্ষে কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগারসহ (সিইটিপি) এ প্রকল্পের সার্বিক বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় এ কথা জানানো হয়।

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এতে সভাপতিত্ব করেন।

সভার উদ্ধৃতি দিয়ে শিল্প মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে সাভার (ঢাকা) চামড়া শিল্পনগরির কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগারসহ (সিইটিপি) সকল কাজ সম্পন্ন হবে। এ শিল্পনগরীর সকল কাজ শেষ করার পর আগামি বছরের শুরুতেই লেদার ওয়ার্কিং গ্রুপের (এলডব্লিউজি) সনদ অর্জনের লক্ষ্যে নিরীক্ষার আমন্ত্রণ জানানোর জন্য আজকের সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সভায় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এমপি, শিল্প সচিব মো. আবদুল হালিম, বিসিক’র চেয়ারম্যান মো. মোশ্তাক হাসান এনডিসি, বুয়েটের টিম লিডার অধ্যাপক ড. মো. দেলোয়ার হোসেন, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের প্রেসিডেন্টে সাইফুল ইসলাম, বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাহীন আহমেদ, বাংলাদেশ ফিনিশ্ড লেদার, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ মাহিন, চামড়া শিল্পনগরী প্রকল্পের পরিচালক প্রকৌশলী জিতেন্দ্রনাথ পাল, এপেক্স গ্রুপের প্রতিনিধি মেজর (অবঃ) মির্জা আনোয়ারুল কবিরসহ শিল্প মন্ত্রণালয়, বিসিক ও চামড়া শিল্প সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় উল্লেখ করা হয়, সিইটিপি’র কার্যক্রম শতভাগ সম্পন্ন করার জন্য যন্ত্রপাতিসহ আমদানিযোগ্য মালামাল ইতোমধ্যে প্রকল্প এলাকায় পৌঁছেছে। বর্তমানে এগুলো স্থাপনের কাজ চলছে। সিইটিপি’র ডি-ওয়াটারিং হাউজের নয়টি ইউনিটের মধ্যে তিনটি ইউনিটের কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং এগুলোতে স্লাজ কেক তৈরি হচ্ছে। বাকি ৬টি ইউনিটের কাজ ২৫ অক্টোবরের মধ্যে শেষ হবে।

আরও জানানো হয়, সিইটিপি’র ক্রোম সেপারেশনের লক্ষ্যে অবকাঠামো নির্মাণ শেষ হয়েছে। বর্তমানে সিইটিপিতে স্থাপিত ৭টি জেনারেটরের সব ক’টি সচল রয়েছে এবং সকল পাম্প চালু আছে। এর সেন্ট্রাল ল্যাবরেটরি ও অটোমেশনের কাজ নভেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে। একইসাথে এ শিল্পনগরীতে কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য ২টি ডাম্পিং ইয়ার্ড স্থাপনের লক্ষ্যে ড্রয়িং ও ডিজাইন চূড়ান্ত করা হয়েছে। এটি নির্মাণের জন্য আগামি ১৫ অক্টোবরের মধ্যে দরপত্র আহবান করা হবে। এছাড়া, সিইটিপি’র অভ্যন্তরীণ রাস্তা নির্মাণের কাজও প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারির শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা বলেন, চামড়া শিল্পনগরীর সিইটিপি’র বাস্তবায়ন কাজ সন্তোষজনক গতিতে এগিয়ে চলছে। সরকার চামড়াখাতে রফতানি বাড়াতে সিইটিপি’র পাশাপাশি পুরো শিল্পনগরীকে এলডব্লিউজি সনদের আওতায় নিয়ে আসবে। এর মাধ্যমে চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে বিদ্যমান প্রতিবন্ধকতা দূর করে বাংলাদেশের রফতানি বাড়বে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এর আগে শিল্পমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারির শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা এবং শিল্প সচিব চামড়া নগরীর বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন ও শিল্প প্লটে চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণ কার্যক্রম ঘুরে দেখেন।

পূর্বপশ্চিমবিডি/ইমি


Warning: Invalid argument supplied for foreach() in /home/hi5newsc/public_html/templates/feed-view-v1/np_details_page/more_news.php on line 32