ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
BYবিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস

প্রিয়া প্রকাশ ভেরিয়ার। কদিন আগেও এই তরুণীর নাম কেউ জানতেন না। কিন্তু এখন তিনি ইন্টারনেট সেনশেসন। সোশ্যাল মিডিয়ার নয়া ক্রাশ। ইনস্টাগ্রামে একদিনে ছয় লাখেরও বেশি ফলোয়ার বেড়েছে তার। গোটা বিশ্বে এই রেকর্ড ছোঁয়ার নিরিখে তিনি তৃতীয় সেলিব্রিটি। রাতারাতি খ্যাতির চূড়ায়। সারা দেশের যুবকরা তাকে প্রায় হৃদয়ের মণিকোঠায় তুলে রেখেছেন।

কিন্তু সকলের মধ্যে ব্যতিক্রম হায়দ্রাবাদের যুবক মহম্মদ আবদুল মুকিদ খান ও তার বন্ধুরা। মুকিদ ও তার বন্ধুদের দাবি, প্রিয়ার যে গান নিয়ে এত হইচই, সেখানে মুসলিমদের ধর্মানুভূতিতে আঘাত করা হয়েছে। ঠিক এই অভিযোগ জানিয়ে তারা পুলিশের দ্বারস্থও হয়েছেন।

সংবাদমাধ্যমকে মুকিদ বলেছেন, ‘আমি ইউটিউবে ভিডিওটি দেখেছি। দেখে ভালো লেগেছে। ডাউনলোডও করে রেখেছি। বারবার দেখার পর গানের কথাগুলো বোঝার চেষ্টা করি। কিন্তু গানের কথা মালয়ালাম ভাষায় হওয়াতে বুঝতে পারিনি। তখন গুগল করি। শেষমেশ অনুবাদ করলে গানের কথা স্পষ্ট হয়। তখনই বুঝতে পারি, এই গানে মহানবী হযরত মোহাম্মদ(স.)-কে অবমাননা করা হয়েছে। গানের কথা মুসলিমদের ভাবাবেগে আঘাত করছে।’

এমন অভিযোগে নিয়েই হায়দ্রাবাদ পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন মহম্মদ আবদুল মুকিদ খান ও তার বন্ধুরা। অভিনেত্রী প্রিয়া প্রকাশ ও গানের কম্পোজারদের বিরুদ্ধে তারা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ব্যাপারে প্রিয়া কিংবা ছবির কলাকুশলীদের কোনো মন্তব্য এখনও পাওয়া যায়নি। আর এই অভিযোগ দায়েরের মধ্য দিয়ে রাতারাতি স্টার হওয়ার পাশাপাশি খানিকটা বিতর্কিতও হয়ে গেলেন অষ্টাদশী প্রিয়া।

প্রিয়াকে নিয়ে এমন বিতর্ক শুরু হওয়ার আগেই অবশ্য মুক্তি পায় তার দ্বিতীয় ভিডিওটি। প্রথমটিতে প্রেমিকের উদ্দেশ্যে চোখ মেরেই নেটদুনিয়ায় ঝড় তুলেছিলেন। এবার চুম্বন বুলেট বিঁধিয়ে দিয়েছেন তার অনস্ক্রিন প্রেমিকের বুকে। যা ঘায়েল করেছে অন্য পুরুষকুলকে। যথারীতি এ ভিডিওটি নিয়েও শুরু হয়েছে তুমুল আলোড়ন।

প্রিয়ার যে গানটি নিয়ে বিতর্ক দেখে নিন সেটি....

ঢাকাটাইমস/১৪ফেব্রুয়ারি/এএইচ