ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৬

সিনেমা হল উন্নয়নে মিলছে ৫০ কোটি টাকা

https://www.jagonews24.com/entertainment/news/427786
BYবিনোদন প্রতিবেদক প্রকাশিত: ০৯:০৫ পিএম, ১৬ মে ২০১৮

অবশেষে চলচ্চিত্রের মন্দাবস্থা কাটাতে সিনেমা হল উন্নয়নে মনোযোগী হচ্ছে সরকার। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর সম্মিলিত দাবিতে সাড়া দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার।

সিনেমা হলের উন্নয়নে প্রাথমিকভাবে বরাদ্দ আসছে ৫০ কোটি টাকা। আগামী ৬ মাসের মধ্যেই অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে ডিজিটাল হবে ৭-১০টি সিনেমা হল। এ তালিকায় আছে অর্ধশতাধিক হল। ধীরে ধীরে সারাদেশের হলগুলোই ডিজিটালের আওতায় আসবে। বুধবার 'অফিসার রিটার্নস' সিনেমার মহরতে এ কথা জানান চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার।

এফডিসি জহির রায়হান ভিআইপি প্রজেকশন হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে গুলজার বলেন, ‘সবাই মিলে চেষ্টা করলে অনেক কিছুই সম্ভব। সেটা প্রমাণ হতে যাচ্ছে। আজকের সিনেমার যে দুরাবস্থা বিরাজমান, তার অন্যতম কারণ সিনেমা হলের নাজুক ও বেহাল দশা। আছে অব্যবস্থাপনাও।

তিনি বলেন, নির্দিষ্ট একটি গোষ্ঠীর কাছে, ব্যক্তিদের কাছে সিনেমা হলগুলো কুক্ষিগত। একজন নির্মাতা তার সিনেমাকে ইচ্ছেমতো হলে মুক্তি দিতে পারেন না। আর হলে গেলেও নানা দুর্নীতির মুখে প্রযোজক প্রাপ্য টাকা ফেরত পান না। এবার সেই সমস্যার অনেকটাই কেটে যাবে। আগামী ৬ মাসের মধ্যেই সিনেমা হলে রাষ্ট্রীয়ভাবে ডিজিটাল হবে।

তিনি আরও বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমরা চলচ্চিত্রের মানুষেরা কৃতজ্ঞ। তিনি আমাদের সমস্যা উপলব্ধি করেছেন এবং তার সমাধানে আন্তরিকভাবে এগিয়ে এসেছেন। শিগগিরই ৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ আসছে সিনেমা হলের উন্নয়নে। আগামী দিনগুলোতে সারাদেশের সিনেমা হল রাষ্ট্রীয়ভাবে আধুনিকায়ন করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে।'

অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু আরও যোগ করে বলেন, 'আধুনিক হলের পাশাপাশি শিগগিরই ই-টিকিটিং ব্যবস্থাও চালু হবে হলগুলোতে। সরকারও দ্রুতই এই ব্যাপারে কাজ শুরু করতে চায়। ফলে কোন হলে কত টাকার টিকিট বিক্রি হলো সেটা যে কেউ ওই হলের ওয়েবসাইটে গিয়ে জানতে পারবেন। প্রযোজকদের আর ফাঁকি দেয়া যাবে না।'

আজকের মহরত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন 'অফিসার রিটার্নস' ছবির প্রযোজক আব্দুল বাছেত, নির্মাতা বন্ধন বিশ্বাস, নায়ক নিরব, নায়িকা জলি, অভিনেতা শিমুল খানসহ আরও অনেকেই।

এলএ/এমআরএম/জেআইএম