ঢাকা, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৭

একুশে টিভিতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে জাফর ইকবালের আড্ডা

https://www.jagonews24.com/entertainment/news/488876
BYবিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক প্রকাশিত: ০৫:৫১ পিএম, ২১ মার্চ ২০১৯

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে বিশেষ একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে একুশে টেলিভিশন। ‘প্রজন্মে স্বাধীনতা’ শিরোনামের এই অনুষ্ঠানে অতিথি হয়েছেন জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। এই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নতুন প্রজন্মের বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ভাবনা নিয়ে কথা বলেছেন তিনি।

বুধবার একুশে টেলিভিশনের স্টুডিওতে এই অনুষ্ঠানটি ধারণ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন সিফাত তন্ময়। উপস্থাপনা করেছেন মীম নোশিন নওয়াল খান।

সিফাত তন্ময় জানালেন, তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জাগ্রত করাই এই অনুষ্ঠানের লক্ষ্য। এখানে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে আলোচনা এবং স্মৃতিচারণ করেন এবং নতুন প্রজন্মকে নানান দিক-নিদের্শনা প্রদান করেন। অংশগ্রহনকৃত শিক্ষার্থীরা দেশ মুক্তিযুদ্ধ এবং তার ব্যক্তিগত বিভিন্ন বিষয় জানার জন্য প্রশ্ন করেন এবং জাফর ইকবাল সেসব প্রশ্নের উত্তর দেন ।

ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, ‘দেশকে ভালোবাসার যে অনুভূতি এর চেয়ে সুন্দর কোনো অনুভূতি এই পৃথিবীতে নাই। যারা দেশকে ভালোবাসার অনুভূতি পায় না তাদের জন্য আমার খুব মায়া হয়। আমি চাই আমাদের তরুণ প্রজন্ম যেন সে অনুভূতিটা পায়। এটা সম্ভব তারা যদি মুক্তিযুদ্ধের ত্যাগের ইতিহাস জানে। আমি সব সময় তরুণ প্রজন্মকে একটা বলি, তোমরা যাই করো না কেন, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসটা ভালো করে পড়।’

মীম নোশিন নওয়াল খান বলেন, ‘কখনো কখনো হুটহাট ঘটে যাওয়া অনাকাঙিক্ষত ঘটনাগুলো খুব সুন্দর হয়!সঞ্চালকের সিটে আসলে আমার থাকার কথা ছিল না। আমার আমন্ত্রণ ছিল বাকিদের মতো অতিথি হিসেবে।সামনে পরীক্ষা, তাই তন্ময় ভাইয়া বারবার বলার পরেও বলেছিলাম এই অনুষ্ঠানটায় থাকতে পারব না।

তন্ময় ভাইয়া আম্মুকে রাজি করিয়ে ফেলল। কী আর করার! গেলাম। কিন্তু কোনো এক বিশেষ কারণে কোনো প্রস্তুতি ছাড়া, বিনা স্ক্রিপ্টে ইউনিফর্ম পরা অবস্থাতেই সঞ্চালকের ভূমিকায় নেমে পড়তে হলো। আর আমারও হলো জীবনের সবচেয়ে সুন্দর অভিজ্ঞতা।’

প্রযোজক সূত্রে জানা গেছে, আগামী ২৬ শে মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় একুশে টিভিতে প্রচার হবে অনুষ্ঠানটি।

এমএবি/এলএ/জেআইএম