ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
BY  সোহেল আহসান ১২ জুলাই ২০১৮, ১৯:৩০ | প্রিন্ট সংস্করণ
শাকিব-অপু। ফাইল ছবি বাংলাদেশের মিডিয়াঙ্গনে কিছু দিন পরপর তারকাদের সংসার ভাঙার খবর পাওয়া যাচ্ছে। চলতি বছরের অর্ধেক পার না হতেই বেশ কয়েকজন তারকা নিজেদের সংসারে বিচ্ছেদ ঘটিয়েছেন।

এ নিয়ে ভক্তদের পাশাপাশি অন্য তারকারাও উদ্বিগ্ন। কেন এই বিচ্ছেদ? মনোবিদের কাছে এর সমূহ কারণসহ বিস্তারিত লিখেছেন সোহেল আহসান

তারকারা ভক্তদের কাছে অনুকরণীয়। কাজের পাশাপাশি তাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও ভক্তদের আগ্রহ অনেক। মাঝে মধ্যই ব্যক্তিগত জীবনের খবর নিয়ে এই ভক্তদের মন ভাঙছেন তারা। যদিও নিয়মিত বিরতিতেই ভাঙা-গড়ার খেলায় মেতে আছেন তারকারা।

চলতি বছরের অর্ধেক সময়েই শোবিজে সংসার ভাঙার খবর নিয়ে আলোচিত হয়েছেন অনেকেই। সময় যতই যাচ্ছে, ততই এ বিচ্ছেদের খবর বাড়ছে। এ নিয়ে হুমকির মুখে পড়ছে তারকাদের ব্যক্তিগত ইমেজ।

এ অঙ্গনে কর্মরত মানুষ তাই সামাজিকভাবে সম্মানহানির শিকার হচ্ছেন। অনেকে আবার পেশা পরিবর্তন নিয়েও ভাবছেন। কেন এমন হচ্ছে? কেনই বা সংসার ভাঙছে? এ নিয়ে বিশ্লেষণ করছেন অনেকেই।

মতের অমিল, বিশ্বাসহীনতা, সন্দেহপ্রবণতা, পরকীয়াসহ আরও নানা কারণেই এ ভাঙনের সৃষ্টি বলে জানা গেছে খোঁজ নিয়ে। এ তালিকায় সর্বশেষ সংযোজন এক সময়ের মডেল ও অভিনেত্রী শ্রাবন্তী।

তিনি ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষক ও এনটিভির অনুষ্ঠান বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা খোরশেদ আলমকে।

২০১০ সালে বিয়ের কয়েক বছর পর তারা আমেরিকায় গিয়ে বসত গড়েন। ভালোই চলছিল তাদের সংসার জীবন। হঠাৎ করেই এ বছরের গোড়ার দিক থেকে তাদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়।

চলতি বছরের ৭ মে শ্রাবন্তীকে তালাক নোটিশ দেন খোরশেদ আলম। তাদের ঘরে দুটি কন্যাসন্তানও রয়েছে। দেশে ফিরে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেন শ্রাবন্তী। সেই সঙ্গে স্বামীর বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগও করেন তিনি। যদিও অভিযোগটিকে ভিত্তিহীন বলছেন খোরশেদ আলম।

এ বছরের শুরুর দিকে সংসার জীবনের ইতি টানেন সঙ্গীতশিল্পী বাপ্পা মজুমদার ও অভিনেত্রী চাঁদনী। তবে খবরটি প্রকাশ পায় কিছুদিন আগে। এ বিচ্ছেদের পেছনেও নাকি একাধিক কারণ রয়েছে বলে জানিয়েছেন তাদের ঘনিষ্ঠজনরা।

সংসার ভাঙার অল্পদিনের মধ্যেই আবারও নতুন সংসার শুরু করলেন বাপ্পা মজুমদার। অভিনেত্রী ও উপস্থাপিকা তানিয়া হোসাইনের সঙ্গে নতুন জীবন শুরু করেছেন তিনি। ২৩ জুন তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

ছোট পর্দার মডেল ও অভিনেত্রী তাসনুভা তিশার ঘরও ভেঙেছে এরই মধ্যে। দীর্ঘদিনের প্রেমিক ফারজানুল হককে ২০১৫ সালে বিয়ে করেন তাসনুভা তিশা। তাদের ঘরে একটি সন্তান আছে।

তারপরও টেকানো যায়নি এ সংসারটি। এর আগে গত বছর শাকিব ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে ও তাদের সন্তান আব্রাম খান জয়ের খবর প্রকাশ পায়। ৮ বছর তারা চুপিসারে সংসার করেন। কিন্তু এটি প্রকাশের পর বেশিদিন টেকেনি তাদের সংসার।

এ বছরের শুরুতে তাদের সংসার জীবনের ইতি ঘটে। গত মে মাসের শেষের দিকে সাফায়াত আলী চয়নের সঙ্গে বিয়ে বিচ্ছেদ হয় লাক্স তারকা নাদিয়া মিমের। বয়সের ব্যবধানের কারণে দু’জনের মধ্যে বিয়ের পর থেকে মতের মিল হচ্ছে না বলে জানা যায়। যার ফলে দু’জন ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নেন।

গত বছরের ভাঙনের তালিকাটাও বেশ বড়। ২০১৭ সালে গায়ক ও নায়ক তাহসানের সঙ্গে মডেলও অভিনেত্রী মিথিলার সংসার ভাঙনের খবরটি সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয়। জানা গেছে শুধু মনের অমিলের কারণেই নাকি বিচ্ছেদ ঘটে তাদের।

একই বছর স্ত্রী রেহানের সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটে কণ্ঠশিল্পী হাবিবের। তাদের ঘরে আলিম নামের একটি ছেলে সন্তানও আছে। গত বছর বিচ্ছেদ ঘটে শখ ও নিলয়েরও।

এ বিচ্ছেদের তালিকায় গত কয়েক বছরে আরও যুক্ত হয়েছেন অভিনেত্রী বাঁধন, সারিকা, সোহানা সাবা, স্পর্শিয়া, নোভা, প্রসূন আজাদ, কণ্ঠশিল্পী সালমা, মিলা, ইবরার টিপুসহ আরও অনেকে।