ঢাকা, সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

দিনাজপুর মেডিকেলে প্রথম লাইভ ওয়ার্কশপ, রোগীদের স্বল্পমূল্যে রিং সুবিধা

https://www.jugantor.com/country-news/242283/দিনাজপুর-মেডিকেলে-প্রথম-লাইভ-ওয়ার্কশপ-রোগীদের-স্বল্পমূল্যে-রিং-সুবিধা
BY  যুগান্তর রিপোর্ট ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ২০:৩৯ | অনলাইন সংস্করণ
দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ কার্ডিওলজি বিভাগ ও বাংলাদেশ রেডিয়াল ইন্টারভেনশন কোর্স (BRIC) এর উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী কমপ্লেক্স ট্রান্সরেডিয়াল ইন্টারভেনশন ও পিটিএমসির লাইভ ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার শুরু হওয়া ওই ওয়ার্কশপের অধীনে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাথল্যাবে ৫টি সিটিও, ২ ক্যালসিফাইড ও ২ সিম্পল লিশন সহ ৯ রোগীর হাতের রক্তনালীর মাধ্যমে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে ডিসটাল রেডিয়াল, রেডিয়াল ও আলনার রুট ব্যবহার করে হৃদপিণ্ডের ধমনীতে সফলভাবে সরকার নির্ধারিত স্বল্পমূল্যে রিং (স্টেন্ট) প্রতিস্থাপন করা হয়।

একই সঙ্গে রিউম্যাটিক হার্ট ডিজিজ সরু হার্টভাল্ব (মাইট্রাল স্টেনোসিস)-এর ২ জন রোগীর পিটিএমসি প্রসিডিউরের মাধ্যমে সফলভাবে চিকিৎসা করা হয়।

২ দিন ব্যাপী ওয়ার্কশপে উপস্থিত ছিলেন দেশবরেন্য ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের অধ্যাপক ডা. মীর জামাল উদ্দিন, ইব্রাহীম কার্ডিয়াক হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক সি এম শাহীন কবির ও এনআইসিভিডির ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট ডা. মো. সাকীফ শাহরিয়ার।

এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হৃদরোগ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক ডা. এ এফ. খবির উদ্দীন আহমেদ, সহকারী অধ্যাপক ডা. শাহরিয়ার কবীর, ও সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. বসির উদ্দীনসহ হৃদরোগ বিভাগের সবাই উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকার বাইরের লাইভ ওয়ার্কশপের মাধ্যমে এতজন রোগীর ট্রান্সরেডিয়াল রুটে স্টেন্ট সফলভাবে প্রতিস্থাপন এই প্রথম।

এসময় দিনাজপুর সফরে আসা স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) প্রফেসর ডা. নাসিমা সুলতানা এসে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাথ ল্যাবে ওই কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

Jugantor