ঢাকা, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৫
BYডা. এবিএম আবদুল্লাহ
১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০:৪৭
ক্যানসার একটি ঘাতকব্যাধি। ছবি : সংগৃহীত

ক্যানসারের লক্ষণ নির্ভর করে কোথায় কী ধরনের ক্যানসার হয়েছে, তার ওপর। অনেক ক্ষেত্রেই কোনো লক্ষণ থাকে না। দেখা গেছে, ক্যানসার ছড়িয়ে যাওয়ার পরেই তা ধরা পড়ে। তারপরও কিছু কিছু লক্ষণ বা উপসর্গ থাকলে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া উচিত। যেমন :  • সুস্থ ছিলেন, হঠাৎ ওজন কমে যাওয়া। • অরুচি বা ক্ষুধামান্দ্য। • অতিরিক্ত দুর্বলতা, রক্তস্বল্পতা, দাঁতের গোড়ায় বা নাক দিয়ে রক্তক্ষরণ, চামড়ার নিচে জমাট রক্ত ইত্যাদি। • শরীরে কোথাও চাকা বা গোটা দেখা দিলে, বিশেষ করে গলায়, বগলে, কুঁচকিতে, পেটে বা নারীদের স্তনে। • দীর্ঘদিন জ্বর থাকলে, বিশেষ করে যদি রাতের বেলা প্রচুর ঘাম হয়। • অনেক দিনের কাশি, যা সাধারণ চিকিৎসায় ভালো হচ্ছে না। বিশেষ করে বয়স্কদের বেলায় এবং কাশির সঙ্গে রক্ত এলে। • গলার স্বর ভেঙে গেলে বা কাশির সঙ্গে গলার স্বরের পরিবর্তন হলে।  • বয়স্কদের প্রস্রাব করতে সমস্যা হলে, ব্যথা হলে বা প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত গেলে। • পায়খানার অভ্যাস পরিবর্তন হলে বা পায়খানার সঙ্গে রক্ত গেলে।  • খাবার গিলতে অসুবিধা বা ব্যথা। • বদহজম, দীর্ঘদিনের পেটে ব্যথা বা রক্তবমি। • নারীদের ক্ষেত্রে ঋতু পরিবর্তন হওয়া, যাদের ঋতুস্রাব বন্ধ হয়ে গেছে, তাদের আবার রক্তক্ষরণ হওয়া। • মাথাব্যথা, খিঁচুনি, জ্ঞান হারানো, হঠাৎ বমি করা ইত্যাদি।  • চামড়ায় নতুন করে রঙের পরিবর্তন, তিলের আকার বা গড়ন পরিবর্তন হওয়া ইত্যাদি।  লেখক : ডিন, মেডিসিন বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।