ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৬
BYফিচার ডেস্ক
১৮ আগস্ট ২০১৮, ১৭:২৭

গর্ভাবস্থায় উচ্চ রক্তচাপ হলে এবং প্রস্রাবের সঙ্গে প্রোটিন গেলে তাকে প্রি-একলামসিয়া বলে। প্রি-একলামসিয়ার ক্ষেত্রে করণীয় বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩১৭৫তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. ঝুমা বিশ্বাস।

ডা. ঝুমা বিশ্বাস বর্তমানে আদ দ্বীন হাসপাতালের গাইনি বিভাগে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : যখন মায়েরা এই জাতীয় সমস্যা নিয়ে আপনাদের কাছে আসে, তারপর আপনাদের কী করণীয় থাকে?উত্তর : প্রথমে আমরা মাকে আশ্বস্ত করি যে সঠিক চিকিৎসা নিলে তার প্রি-একলামসিয়া জনিত যেসব জটিলতা হয়, এগুলো থেকে সে ও তার সন্তান, দুজনকেই সুরক্ষা দেওয়া সম্ভব। প্রথমে আমরা তার রক্তচাপ দেখি এবং বিভিন্ন পরীক্ষা করি। তার কী ধরনের প্রোটিন যাচ্ছে, কতটুকু পরিমাণ যাচ্ছে, সেটা দেখি। সঙ্গে আল্ট্রাসোনোগ্রাফি করে সন্তানের অবস্থা দেখে নিই।

যদি প্রয়োজন মনে করি, যেমন বিভিন্ন লক্ষণ রয়েছে, যাকে আমরা সিভিয়ার বা জটিল প্রি-একলামসিয়া বলে। যেমন ১৬০/ ১১০-এর মধ্যে রক্তচাপ বেড়ে যায়, যদি মায়ের মাথাব্যথা, পেটে ব্যথা, বমি বমি ভাব, ঘুম কম হওয়া এবং প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত যাওয়া, প্রস্রাব কম আসা ইত্যাদি হয়, তখন আমরা তাদের ভর্তি করি।

প্রশ্ন : গর্ভাবস্থার ঠিক কোন সময়ে এই অবস্থা হওয়ার ঝুঁকি থাকে?উত্তর : সাধারণত প্রি-একলামসিয়া ২০ সপ্তাহের পর হয়। আস্তে আস্তে এর জটিলতা বাড়তে থাকে যদি কোনো মা চিকিৎসা না নেয় এবং প্রেশারের ওষুধ না খায়।