ঢাকা, সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৭

অলরাউন্ড নৈপুণ্যে উজ্জ্বল সানি, নাসিরের সেঞ্চুরি

http://bangla.bdnews24.com/cricket/article1612910.bdnews
BY  ক্রীড়া প্রতিবেদক,  বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 15 Apr 2019 05:53 PM BdST Updated: 15 Apr 2019 07:27 PM BdST

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সুপার লিগের প্রথম রাউন্ডে ৬ উইকেটে জিতেছে শেখ জামাল। ২৩৭ রানের লক্ষ্য ৮ বল বাকি থাকতে পেরিয়ে যায় নুরুল হাসান সোহানের দল।

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে সোমবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই এনামুল হককে হারায় প্রাইম ব্যাংক। খালেদ আহমেদের ছোবল সামলে শতরানের জুটিতে দলকে এগিয়ে নেন রুবেল মিয়া ও নামান ওঝা।

সাবধানী ব্যাটিংয়ে দুই চারে ৭৫ বলে ৪৬ রান করা ভারতীয় কিপার-ব্যাটসম্যান ওঝাকে বোল্ড করে ১২০ রানের জুটি ভাঙেন সানি। শিকার ধরেন তানবীর হায়দারও। ফিরিয়ে দেন ৬ চার ও এক ছক্কায় ৬৬ রান করা রুবেলকে।

সানি-তানবীরের স্পিনে দিশেহারা হয়ে দ্রুত ফিরে যান আল আমিন জুনিয়র, অলক কাপালী, নাহিদুল ইসলাম ও নাঈম হাসান। ১৪০ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা প্রাইম ব্যাংককে ২৩৬ পর্যন্ত নিয়ে যান আরিফুল হক। বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে ৫১ বলে ৭ ছক্কা ও দুই চারে ৭৪ রান করে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন এই অলরাউন্ডার।

বাঁহাতি স্পিনার সানি তিন উইকেট নেন ৩৫ রানে। লেগ স্পিনার তানবীর ৪৩ রানে নেন তিনটি।

ইমতিয়াজ হোসেনের সঙ্গে ৪৫ রানের উদ্বোধনী জুটিতে ভালো শুরু এনে দেওয়া সানি তৃতীয় উইকেটে নাসিরের সঙ্গে উপহার দেন ৯৩ রানের জুটি। চারটি চার ও এক ছক্কায় ৬৭ রান করা সানিকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন আব্দুর রাজ্জাক।

দ্রুত ফিরে যান অধিনায়ক সোহান। তানবীরকে নিয়ে বাকিটা সহজেই সারেন লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে নিজের সপ্তম সেঞ্চুরি পাওয়া নাসির। ১১০ বলে তিন ছক্কা ও ১২ চারে ১১২ রানে অপরাজিত থাকেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

গত আসরের সুপার লিগে শেষ রাউন্ডে সেঞ্চুরি করেছিলেন নাসির। চোট থেকে ফেরার পর রানের জন্য সংগ্রাম করছিলেন তিনি। এবারের আসরে প্রাইম ব্যাংকের সঙ্গে আগের দেখায় খেলেছিলেন ৭৬ রানের ভালো একটি ইনিংস। এবার ছুঁলেন তিন অঙ্ক।

অলরাউন্ড নৈপুণ্যের জন্য ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন সানি।

১২ ম্যাচে সপ্তম জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে আছে শেখ জামাল। চতুর্থ হারের স্বাদ পাওয়া প্রাইম ব্যাংক ১৬ পয়েন্ট নিয়ে আছে তিন নম্বরে।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব: ৪৮.৩ ওভারে ২৩৬ (এনামুল ০, রুবেল ৬৬, ওঝা ৪৬, আল আমিন জুনিয়র ৬, কাপালী ১, নাহিদুল ০, নাঈম ১, আরিফুল ৭৪, মনির ১৪, রাজ্জাক ১৪, আল আমিন ০*; খালেদ ১/২৯, শাকিল ২/৩৭, তাইজুল ০/২৭, নাসির ০/৩৫, সানি ৩/৩৫, তানবীর ৩/৪৩, এনামুল হক ১/২৯)

শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব: ৪৮.৪ ওভারে ২৩৯/৪ (ইমতিয়াজ ২৬, সানি ৬৭, মুনাবিরা ১২, নাসির ১১২*, সোহান ৫, তানবীর ১২*; আল আমিন ০/২৪, মনির ০/৬১, নাহিদুল ২/৩০, রাজ্জাক ২/৫২, নাঈম ০/৩১, কাপালী ০/৩১, আল আমিন জুনিয়র ০/১০)

ফল: শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব ৬ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: ইলিয়াস সানি