ঢাকা, সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

হেঙ্ককে উড়িয়ে দিল লিভারপুল

http://bangla.bdnews24.com/sport/article1680425.bdnews
BY  স্পোর্টস ডেস্ক,  বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 24 Oct 2019 02:58 AM BdST Updated: 24 Oct 2019 03:45 AM BdST

‘ই’ গ্রুপে হেঙ্কের মাঠে বুধবার রাতে ৪-১ গোলে জিতেছে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। জোড়া গোল করেন অ্যালেক্স অক্সলেইড-চেম্বারলেইন। একটি করে গোল করেন মোহামেদ সালাহ ও সাদিও মানে।

প্রতিপক্ষের মাঠে লিভারপুলের শুরুটা হয় দুর্দান্ত। ফাবিনিয়োর কাছ থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে গড়ানো শটে বার ঘেঁষে বল জালে পাঠান অক্সলেইড-চেম্বারলেইন।

ষষ্ঠ মিনিটে প্রতি আক্রমণে সমতা প্রায় ফিরিয়ে ফেলেছিল হেঙ্ক। ভার্জিল ফন ডাইককে ফাঁকি দিয়ে এগিয়ে যান মোওয়ানা সামাতা। বুক দিয়ে বল নামিয়ে বিপজ্জনক জায়গা থেকে তিনি লক্ষভ্রষ্ট শট নিলে হাতছাড়া হয়ে যায় সুবর্ণ সুযোগ। দুই মিনিট পর পল অনুয়াচুর শট ফিরিয়ে অতিথিদের ত্রাতা আলিসন।

২৫তম মিনিটে রবের্তো ফিরমিনোর দুর্দান্ত পাসে সুযোগ এসে যায় মানের সামনে। তবে এই ফরোয়ার্ডের শট দারুণ দক্ষতায় ব্যর্থ করে দেন স্বাগতিক গোলরক্ষক।

বেলজিয়ান চ্যাম্পিয়নরা পরের মিনিটে বল জালে পাঠিয়েছিল। তবে অফসাইডের জন্য গোল হয়নি। ৩৮তম মিনিটে সতীর্থের দুর্দান্ত ক্রস একটুর জন্য গোলমুখে নাগালে পাননি সামাতা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে ছড়ায় উত্তেজনা। দুই দলই হাতছাড়া করে সুযোগ। এরই মাঝে ৫৭তম মিনিটে আবার ডি-বক্সের বাইরে থেকে দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন অক্সলেইড-চেম্বারলেইন। ফিরমিনোর কাছ থেকে বল পেয়ে ডান পায়ে উঁচু করে শট নেন এই ইংলিশ মিডফিল্ডার। ক্রসবারের নিচের দিকে লেগে জালে যায় বল।

ফিরমিনো-সালাহ-মানের নিখুঁত সব পাসের যোগফল তৃতীয় গোল। ৭৭তম মিনিটে সালাহর বাড়ানো বল ছুটে গিয়ে কিপারের ডাইভ এড়িয়ে জালে জড়ান মানে।

১০ মিনিট পর অসাধারণ একক নৈপুণ্যে ব্যবধান বাড়ান সালাহ। ঘিরে থাকা ডিফেন্ডারদের পায়ের কারিকুরিতে ফাঁকি দিয়ে আড়াআড়ি শট নেন। পোস্টে লেগে জালে যায় বল।

পরের মিনিটে ব্যবধান কমায় হেঙ্ক। ডিউমার্সি এডনগালার কাটব্যাকে দারুণ দক্ষতায় জাল খুঁজে নেন স্টিভেন ওডেয়।

গ্রুপের অন্য ম্যাচে সালসবুর্ককে ৩-২ গোলে হারিয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে নাপোলি। হেঙ্ককে হারিয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে উঠে এসেছে লিভারপুল। সালসবুর্ক ৩ পয়েন্ট নিয়ে আছে তিনে। সবার নিচে থাকা হেঙ্কের পয়েন্ট ১।