ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

উত্তরায় নিরাপত্তা কর্মীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

http://dainikamadershomoy.com/bangladesh/161397/উত্তরায়-নিরাপত্তা-কর্মীর-গুলিবিদ্ধ-লাশ-উদ্ধার
BY  নিজস্ব প্রতিবেদক ১১ অক্টোবর ২০১৮, ২০:৫৩ | অনলাইন সংস্করণ

রাজধানীর উত্তরায় খোকন মণ্ডল (২৮) নামে এক নিরাপত্তা কর্মীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার রাতে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের ২২ নম্বর রোডের ২৯ নম্বর ৬ তলা ভবনের নিচ তলার একটি তালাবদ্ধ কক্ষের মেঝেতে লাশটি পড়েছিল।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক)হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় জড়িত কাউকে আটক করা না গেলেও কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

খোকনের লাশের ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ঢামেক ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের প্রভাষক ডা. কবির সোহেল জানান, নিহতের মুখ থেকে একটি গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। গুলিটির আঘাতেই খোকনের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত খোকনের ছোটভাই সুজন মণ্ডল জানান, তার বাবার নাম হোসেন মণ্ডল। গ্রামের বাড়ি লালমনিরহাট সদরে। খোকন সাড়ে চার বছর ধরে উত্তরার ওই বাসায় নিরাপত্তাকর্মীর দায়িত্বে ছিলেন। সুজন গাজিপুরের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। খোকন ও সুজন উত্তরার ওই ভবনের নিচ তলায় থাকতেন।

সুজন মণ্ডল আরও জানান, বুধবার সকালে গাজিপুরে কারখানায় যান সুজন। তখন খোকন বাসায় ছিলেন। বিকেল ৫টার দিকে বাসার মালিকের স্ত্রী সুরাইয়া বেগম খোকনকে না পেয়ে ও তার ঘর তালাবন্ধ দেখে সুজনকে ফোন করেন। সুজন বাসায় এসে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও খোকনকে পাননি। বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ ও সিআইডির একটি দল রাত ১০টার দিকে ওই বাসার নিচ তলায় তাদের কক্ষের তালা ভেঙে মেঝেতে খোকনের গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। এ সময় তার নাক মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিল। জখমের চিহ্ন ছিল তার মাথার বাম পাশেও। খোকনের সঙ্গে কারও কোনো শত্রুতা রয়েছে বলে সুজনের জানা নেই। কারা কী কারণে এই ঘটনা ঘটাল তা ধারণা করতে পারছেন না বলেও সুজন সুজন মণ্ডল জানান।

উত্তরা পশ্চিম থানার উপপরিদর্শক (এসআই ) জিন্নাত খান জানান, লাশের পাশ থেকে একটি গুলির খোসা পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে ওই নিরাপত্তাকর্মীর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।