ঢাকা, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২ পৌষ ১৪২৬
BYনিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস

খুবই কঠিন এবং বিশৃঙ্খল হবে সময় আসছে বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সতর্ক করেছেন বিএনপির শরিক এলডিপি সভাপতি অলি আহমেদ। বলেন, ‘যতই দিন যাবে, রক্তপাত বৃদ্ধি পাবে। এ জন্য বিরোধী দলগুলোকেও সংযত হতে হবে, সরকারকে নমনীয় হতে হবে।’

রক্তপাত এড়াতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধও করেছেন বিএনপির এই শরিক নেতা।

মঙ্গলবার বিকালে বিভিন্ন ‘রাজনৈতিক দলের’ নেতা-কর্মীদের এলডিপিতে যোগদান অনুষ্ঠানে অলি আহমদ এ মন্তব্য করেন।

এলডিপি নেতা বলেন,‘সুষ্ঠু, অবাধ নির্বাচনের জন্য আমি বঙ্গবন্ধু কন্যাকে অনুরোধ করব, রক্তপাত এড়ান। গালি দিয়ে, মন্দ কথা বলে, কাউকে শাসিয়ে, সমালোচনা করে সমস্যার সমাধান হবে না। বসেন, আলোচনা করেন।’

‘কীভাবে সুন্দর নির্বাচন হবে, প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল কীভাবে অংশগ্রহণ করবে, সকলের জন্য কীভাবে সমান-সুযোগ নিশ্চিত করা হবে, এগুলো নিয়ে কথা বলার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান।’

‘এখনো সময় আছে। বিপথগামী না হয়ে গালাগালি বন্ধ করে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে জাতীয় সমস্যা যেগুলো আছে, এগুলো কীভাবে মীমাংসা করবেন? দুর্নীতিবাজদের কীভাবে ধরা হবে, সন্ত্রাসী, মাদকের সঙ্গে জড়িতদের কীভাবে ধরা হবে এসব নিয়ে ভাবার কথা বলেন।’

‘এখনও সময় আছে, সঠিক পথে এসে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এই সমস্যাগুলো সমাধান করেন। জনগণকে আলোর পথ দেখান, রক্তপাত বন্ধ করেন।’

‘এখন আমি ক্ষমতায় আছি, আমি হাজার কোটি টাকা চুরি করব কেউ আমাকে ধরতে পারবে না। যেই ক্ষমতা নেই, দুই টাকা চুরি করলেও তাকে জেলে নিয়ে যায়। এভাবে একটি দেশ চলতে পারে না।’

‘দলীয় ভিত্তিতে নিয়োগ হচ্ছে, দলীয় ভিত্তিতে বিচারকাজ চলছে। আমি তো মনে করি এই সরকার যখন ক্ষমতা থেকে যাবে, এই জজেরা (বিচারকেরা) তাদের ফাঁসিরকাষ্টে ঝুলাবে, যাবজ্জীবন জেল দেবে, ১০-৫ বছর জেল দেবে।’ অনুষ্ঠানে ডেমরা, বাড্ডা এলাকার বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক কর্মী এবং প্রাইম ইউনিভার্সিটির কয়েকজন শিক্ষার্থী এলডিপিতে যোগ দেন। (ঢাকাটাইমস/২৩অক্টোবর/বিইউ)