ঢাকা, শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৪ আশ্বিন ১৪২৭

ইমামকে মারধরের অভিযোগে বিএনপি নেতা আটক

https://www.dhakatimes24.com/2020/08/03/177900/ইমামকে-মারধরের-অভিযোগে-বিএনপি-নেতা-আটক
BYভোলা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলায় ঈদের জামায়াত না পাওয়ায় ইমামকে মারধর করার অভিযোগে স্থানীয় এক বিএনপি নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। হাজী ফিরোজ কিবরিয়া নামের ওই ব্যক্তি উপজেলার দুলারহাট থানার নুরাবাদ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি। সোমবার দুপুরের দিকে পুলিশ তাকে আটক করে।

স্থানীয়রা জানায়, গত শনিবার দুলারহাট থানার নুরাবাদ শামছল হক কমান্ডার বাড়ীর বায়তুন নুর জামে মসজিদে ঈদের জাময়াতের সময় অতিবাহিত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইমাম মাওলানা নুর হোসেনকে মারধর করেন ফিরোজ কিবরিয়া। এই ঘটনায় দোষী ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের দাবিতে রোববার বিকেলে দুলারহাট বাজার এলাকায় কওমী মাদরাসা ছাত্রদের ব্যানারে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়।

মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা নুর হোসেন জানান, শুক্রবার মসজিদ কমিটির সভাপতি মৌলভী আবুল কাশেমসহ মুসল্লীদের সিদ্ধান্তানুযায়ী ঈদের নামাজ ৮টা ৩০মিনিটে শুরু হওয়ার কথা ছিলো। সে অনুযায়ী নামাজ শুরু হয়ে সকাল ৯টা ১০মিনিটে নামাজ শেষ হয়। সেইটা নিয়ে হাজি ফিরোজ কিবরিয়া মুসল্লীদের সমানে তাকে মারধর করেন।বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়গন্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে সুবিচার না পেয়ে দুলারহাট থানায় অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে মসজিদ কমিটির সভাপতি ও ফিরোজ কিবরিয়ার বাবা মৌলভী আবুল কাশেম বলেন, তার ছেলে ইমামকে মারধর করেনি। ঈদের জামাতে নামাজ না পেয়ে উত্তেজিত হয়ে গালমন্দ করেছে।

দুলারহাট থানার ওসি মো. ইকবাল হোসেন খান বলেন, ইমামকে মারধরের ঘটনায় একটি অভিযোগ হলে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। সোমবার দুপুরের দিকে এলাকা থেকে অভিযুক্ত ফিরোজ কিবরিয়াকে আটক করা হয়।

ঢাকাটাইমস/৩ আগস্ট/পিএল