ঢাকা, শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

লোকজ সংস্কৃতি বিকাশে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে সহায়ক হবে: প্রধানমন্ত্রী

http://www.ittefaq.com.bd/national/2018/01/13/143323.html
BYঅনলাইন ডেস্ক
১৩ জানুয়ারী, ২০১৮ ইং ১৯:৫২ মিঃ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, লোক কারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব আবহমান বাংলার লোকজ সংস্কৃতি বিকাশের মাধ্যমে কুসংস্কার ও জঙ্গিবাদমুক্ত অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে সহায়ক হবে। রবিবার থেকে শুরু হওয়া লোক কারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব উপলক্ষে আজ শনিবার দেয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন ১৪ জানুয়ারি থেকে মাসব্যাপী এই উৎসবের আয়োজন করছে। শেখ হাসিনা বলেন, দেশীয় সংস্কৃতির লালন ও বিকাশ এবং বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে আওয়ামী লীগ সরকার নিরসলভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে সরকার গঠন করে ১৯৯৮ সালে ‘বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প আইন’ প্রণয়ন করা হয়। তিনি বলেন, ২০০৯ সালে সরকার পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে। কোরিয়ার সহযোগিতায় লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর ‘ঐতিহাসিক বড় সরদারবাড়ী’ পুনঃনির্মাণ করা হয়। প্রধানমন্ত্রী বলেন, পর্যটকদের সুবিধার জন্য লেকের উপর ব্রিজ, পার্ক ও ৪৮টি কারু বিপণন কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। আমাদের সরকারের উদ্যোগে এ ফাউন্ডেশনের পুষ্প উদ্যানে স্থাপিত জাতির পিতার প্রতিকৃতি ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণে ঘোষিত বাঙালি জাতিসত্তা ও স্বাধীনতার স্মারক হিসেবে চিরদিন অম্লান হয়ে থাকবে। ইত্তেফাক/এমআই