ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

অটোরিকশা চোর রফিক অবশেষে ধরা পড়ল

http://www.kalerkantho.com/online/2nd-capital/2018/11/10/701877
BYনিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

প্রায় দুই হাজার সিএনজিচালিত অটোরিকশা চুরির পর অবশেষে ধরা পড়ল মো. রফিক নামের এক চোর। গতকাল শুক্রবার চট্টগ্রামের পাহাড়তলী থানার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তার কাছ থেকে একটি দেশীয় অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়। রফিকের নেটওয়ার্ক শুধু এক জেলায় নয়, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, বান্দরবান, রাঙামাটি, সিলেট, নারায়ণগঞ্জসহ পুরো দেশে বিস্তৃত।

পুলিশ জানায়, চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার গাছুয়া এলাকার সাইদুল হকের ছেলে গ্রেপ্তারকৃত রফিক একটি সংঘবদ্ধ অটোরিকশা চোরচক্রের প্রধান। কখনো চালক, কখনো যাত্রী সেজে সিএনজিচালিত অটোরিকশা চুরি করে সে। পরে অটোরিকশা মালিকের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা আদায় করে। গ্রেপ্তারকৃত রফিকের বিরুদ্ধে নগরের সদরঘাট, খুলশী, হালিশহরসহ বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে। এর আগে এ চক্রের সদস্য মনির, তার স্ত্রী, শ্যালকসহ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পাহাড়তলী থানার ওসি সুদীপ কুমার দাশ বলেন, অটোরিকশা চোরচক্রের অন্যতম হোতা রফিককে অস্ত্র-গুলিসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে দীর্ঘদিন ধরে পুলিশ খুঁজছিল। রফিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গতকাল আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (পশ্চিম) মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম বলেন, রফিক সিএনজিচালিত অটোরিকশা চুরিকে শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গেছে। পুরো দেশে সে নেটওয়ার্ক বিস্তৃত করেছে। তাকে গ্রেপ্তারের জন্য অনেক দিন ধরে চেষ্টা চলছিল।

মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম আরো বলেন, ‘কৌশলী রফিক এক জায়গায় বেশি দিন থাকে না। নিয়মিত স্থান পরিবর্তন করে। এখন পর্যন্ত তার ব্যবহার করা ৪০টি সিমের নম্বর পেয়েছি আমরা। কয়েকটা চুরির পরই সে সিম বদলে ফেলে। এ চক্রের সদস্যরা গ্রেপ্তার হলেও দ্রুত জামিনে বের হয়ে যায়। এ কাজে তাদের সহায়তা করে আদালতের কিছু অসাধু কর্মচারী।’