ঢাকা, সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩ পৌষ ১৪২৬

মৃত্যুর কাছে হার মানলেন সেই ক্যান্সার আক্রান্ত দম্পতির একজন

http://www.kalerkantho.com/online/country-news/2018/09/25/684333
BYচাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি   

দীর্ঘ কয়েকবছর মরণব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত থেকে অবশেষে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন পাবনার চাটমোহর উপজেলার বালুদিয়ার গ্রামের ক্যান্সার আক্রান্ত দম্পতির একজন। সোমবার দুপুরে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় সেলিনা পারভিন নামের এই গৃহবধূর।

নিহত সেলিনা উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের বালুদিয়ার গ্রামের ক্যান্সার আক্রান্ত আবুল হাসান খন্দকারের স্ত্রী।

এলাকাবাসীর তথ্যে জানা গেছে, প্রায় দুই বছর আগে কণ্ঠনালিতে ক্যান্সার ধরা পড়ে আবুল হাসানের। এক মাসের ব্যবধানে স্ত্রী সেলিনা পারভিনও স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। এরপর জমিজমা বিক্রি করে ঢাকায় পিজি হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল, ইএনটি এন্ড হেডনেক ক্যান্সার হাসপাতাল এবং ডেলটা হাসপাতালে চিকিৎসা করান এই দম্পতি।

চিকিৎসক বলেছিলেন রেডিওথেরাপি ও কেমোথেরাপি দিতে হবে। চিকিৎসা করালে সুস্থ হয়ে ওঠার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে দু’জনের চিকিৎসায় খরচ হবে ৪৮ লাখ টাকা। কিন্তু টাকার অভাবে স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ি ফিরে আসেন আবুল হাসান। অর্থাভাবে ওষুধ খাওয়া বন্ধ ও সঠিক চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হন তারা। চিকিৎসার জন্য অর্থ চাইতে পারেন এমন ভয়ে স্বজনরাও খোঁজ-খবর নেয়া বন্ধ করে দেন। বিভিন্ন জায়গায় ধরনা দিয়েও মেলেনি কোনো সহযোগিতা। বাঁচতে চেয়ে সরকার ও সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা চেয়েছিলেন আবুল হাসান। তবে সর্বশেষ স্থানীয় সংসদের নিকট চিকিৎসার সহায়তা চেয়ে আবেদন করলে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে কিছু টাকা অর্থ সহায়তা পেয়েছিলেন আবুল হাসান। সেই টাকা দিয়ে ঢাকায় চিকিৎসারত অবস্থায় সোমবার দুপুরে মারা যান আবুল হাসানের স্ত্রী সেলিনা বেগম। বর্তমানে আবুল হাসানের অবস্থাও বেশ করুন। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে অসুস্থ অবস্থায় শয্যাগত অবস্থা তার।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম বকুল বলেন, নিহত গৃহবধূ সেলিনার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি। এলাকায় এক সঙ্গে স্বামী-স্ত্রীর ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা বিরল। ইতিপূর্বে এই দম্পতির জন্য মাননীয় সংসদ সদস্য মকবুল সাহেবের নিকট সাহায্যের আবেদন করিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের বেশ কিছু টাকা তাদের প্রধান করা হয়েছিল। এখন অসুস্থ আবুল হাসানের চিকিৎসার ব্যাপারেও সাধ্যনুযায়ী সহযোগীতা করা হবে।