ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

পরিচালকের বিকৃত রুচি নিয়ে মুখ খুললেন ইমরান খান

http://www.kalerkantho.com/online/entertainment/2018/10/12/690699
BYকালের কণ্ঠ অনলাইন   

সিনেপর্দার আড়ালেই ছিলেন ইমরান খান। বলিউডে হিট অভিষেক করলেও পরবর্তীকালে তেমন হিট ছবি দর্শককে দিতে পারেননি। হাতে গোনা কয়েকটি ছবি করার পরই টিনসেল থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছেন ইমরান খান। অ্যাওয়ার্ড শোতেও দেখা যায় না তাঁকে। তবে তাতে ইমরানের কোনও আক্ষেপ নেই। স্ত্রী এবং মেয়েকে নিয়ে নিজের মতোই রয়েছেন। কোনও বিষয় তেমন মন্তব্য না করলেও #MeToo নিয়ে মুখ খুলতে বাধ্য হলেন ‘জানে তু ইয়া জানে না’র অভিনেতা।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ইমরান জানিয়েছেন, ‘আমি তখন ইন্ডাস্ট্রিতে একেবারে নতুন। একজন পরিচালক একটা ফিল্মের জন্য মুখ্য অভিনেত্রীদের অডিশন করছিলেন। প্রতিটি মেয়েকে বিকিনি পরিয়ে সেক্সি পোজ দিতে বলছিলেন। ফোটোশ্যুটগুলো কোনও কস্টিউম টেস্ট বা এবং মার্কেটিংয়ের জন্যও ছিল না। সেই ফোটোগ্রাফগুলো থাকত পরিচালকের ল্যাপটপে। অডিশন থেকে তিনজন শর্টলিস্টেড অভিনেত্রীদের সেই ছবি গুলো দেখিয়ে আলোচনা করা হচ্ছিল। কোনও দরকারই ছিল না বিকিনি পরিয়ে শ্যুট করার তাও নিজের নোংরা মনোভাবের জন্য এমনটা করেছিলেন উনি। ক্ষমতাশালী ব্যক্তি হয়ে নিজের ক্ষমতার দুর্ব্যবহার করেন।’

তাঁর সামনে ঘটা কিছু ঘটনা ছাডা়ও তিনি বিকাশ বেহেলের বিরুদ্ধেও কথা বলেছেন। পরিচালক বিকাশের বিরুদ্ধে এর আগে কঙ্গনা রানাওয়াত এবং বেশ কয়েকজন অভিনেত্রী যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন। অভিনেতা ইমরানও সেই অভিযোগ গুলো সত্যি বলেই অনুমান করছেন।

তিনি জানিয়েছেন, ‘সবাই বিকাশ বেহেলের সম্বন্ধে কথা বলছে। আমিও অনেক কিছুই শুনেছি ওনার ব্যাপারে। এক বছর আগেও একটি মেয়ে বিকাশের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছিল। ইন্ডাস্ট্রির সকলেই জানত। কিন্তু তাতে বিকাশের কিছু যায়ই আসে না। পাঁচ-ছয় মাস আগে আমি ওনাকে একটা পার্টিতে দেখেছিলাম। সেখানে উনি বেশ হেসেই সবার সঙ্গে কথা বলছেন। দেখা করছেন।’

‘বাকিরাও বেশ ভালো ভাবে কথা বলছে বিকাশের সঙ্গে। কেউ তার ব্যাপারটা নিয়ে কথা বলছে না। আমি যখন ওই প্রসঙ্গটা তুললাম। দেখলাম আমি একমাত্র সেখানে আলাদা। এগুলো করেও কী করে সবাই কীরকম সাধারণ ভাবেই ঘুরে বেড়ায়।’

তিনি আরও জানিয়েছেন যে অনেক বড়ো বড়ো তারকারা নারীদের হেনস্থা করেন। ইমরান তাঁদের নাম জানলেও বলতে পারবেন না। কারণ তাঁরা এতটাই প্রভাবশালী যে ইমরানকে কেউ বিশ্বাস করবে না। কিন্তু বলিউডে #MeToo মুভমেন্ট শুরু হওয়ায় তিনি বেশ খুশি।