ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫

হত্যার পর মডেলের মরদেহ ব্যাগে পুরে মাটিচাপা

http://www.kalerkantho.com/online/world/2018/10/16/692322
BYকালের কণ্ঠ অনলাইন   

ট্রাভেল ব্যাগের ভেতর থেকে উদ্ধার হেো এক মডেলের মরদেহ। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মুম্বাইয়ের মালাড অঞ্চলে। ২০ বছর বয়সী ওই মডেলের নাম মানসী দীক্ষিত।

জানা গেছে, অভিনেত্রী হওয়ার আশায় রাজস্থান থেকে মুম্বাই পাড়ি দিয়েছিলেন ওই মডেল। বলিউডে পা রাখবেন বলে কঠিন পরিশ্রমও করে যাচ্ছিলেন মানসী।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রবিরার রাতে আন্ধেরিতে ১৯ বছরের মোজাম্মেল সাঈদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন মানসী। আর সেখানেই কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন দু’জনে। প্রথম থেকেই পুলিশের সন্দেহের তীর ছিল মোজাম্মেলের দিকে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, মোজাম্মেলই দড়ি দিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করেছেন মানসীকে। যদিও এই মোজাম্মেলের সঙ্গে মানসীর আদতে কী সম্পর্ক তা নিয়ে কিছুই জানানো হয়নি পুলিশের পক্ষ থেকে।

পুলিশ বলছে, মানসীর দেহ বাক্সবন্দি করার পরেই বিমানবন্দরের দিকে একটি ক্যাব বুক করেন মোজাম্মেল। মাঝপথে ক্যাব ড্রাইভারকে মাইন্ডস্পেসের দিকে গাড়িটি ঘুরিয়ে দিতে বলেন তিনি। মাইন্ডস্পেস জায়গাটা আসলে ঝোপঝাড় আর ম্যানগ্রোভে ভর্তি।

ওখানেই স্যুটকেসটা পুঁতে রেখেছিলেন অভিযুক্ত, জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তারা। আর তা করতে গিয়েই ক্যাব ড্রাইভারের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েন মোজাম্মেল। ঠিক তখনই ক্যাবটি ছেড়ে একটি অটো রিকশা ধরেন তিনি। ওই সময়েই পুলিশকে ফোন করে বিষয়টা জানান ওই ক্যাব ড্রাইভার।

পুলিশের দাবি, মানসীকে খুন করার কথা ইতোমধ্যেই পুলিশের কাছে স্বীকার করে নিয়েছেন মোজাম্মেল। সেই ঝোপঝাড়ের ভেতর থেকেই বাক্সবন্দি মানসীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আর সঙ্গে সঙ্গেই ময়নাতদন্তের জন্যও মানসীর মরদেহ পাঠিয়ে দেওয়া হয়। মোজাম্মেলকে ৩০২ ধারায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।