ঢাকা, শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

ইমামদের ভাষাজ্ঞানের প্রমাণ দিতে হবে জার্মানিতে

https://www.kalerkantho.com/online/world/2019/11/09/837156
BYকালের কণ্ঠ অনলাইন   
জার্মানিতে আসা ইমাম বা ধর্মগুরুদের জার্মান ভাষা বলার দক্ষতা অর্জন করতে হবে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাইরে থেকে সব ধর্মের ধর্মগুরুদের ক্ষেত্রেই এই আইন প্রযোজ্য হবে। তবে মন্ত্রিসভায় উত্থাপিত এই খসড়া আইনে বিশেষভাবে ইসলাম ধর্মের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। বুধবার জার্মানির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ৷ তিনি বলেন,বিদেশি ইমামেরা জার্মান বলতে পারবেন বলে আমরা আশা করি।

জার্মানির বর্তমান শ্রমআইনে দাতব্য কিংবা ধর্মীয় কাজের জন্য ভিসা ইস্যু করতে কোনো শর্ত আরোপ করা নেই। খসড়া আইনে এই ব্যবস্থায় পরিবর্তন আনার প্রস্তাব করা হয়েছে। এটি পাস হলে বিদেশি ধর্মীয় নেতাদের জার্মানিতে আসার এক বছরের মধ্যে পরিবার, কেনাকাটা, কাজের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে জার্মান ভাষায় আলোচনা করার দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

খসড়া আইনে বলা হয়েছে, ধর্মীয় কারণে নেতারা তাঁদের সম্প্রদায়ে প্রায়সময় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অবতীর্ণ হন

জার্মানির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হর্স্ট সেহোফার বলেছেন, সফলভাবে অভিবাসনের জন্য জার্মান ভাষায় দক্ষতা অর্জন করা অপরিহার্য৷

সবুজ দলের আইনপ্রণেতা ফিলিৎস পোলাট খসড়া আইনের সমালোচনা করেছেন৷ তিনি বলেন, এটি পাস হলে ইমাম স্বল্পতার বিষয়টি আরও বেড়ে যাবে।

জার্মানিতে বর্তমানে প্রায় দুই হাজার মসজিদ রয়েছে। প্রায় ৯০ শতাংশ ইমাম বিভিন্ন দেশ থেকে এসেছেন।

জার্মানির অনেক ক্যাথেলিক ও প্রোটেস্টান্ট গির্জায়ও ইইউর বাইরের যাজকরা কাজ করছেন।

সূত্র : ডয়েচে ভেলে