ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৬

কাবুলের মসজিদে জঙ্গি হামলা, ইমামসহ নিহত দুই

https://www.kalerkantho.com/online/world/2020/06/03/918735
BYকালের কণ্ঠ অনলাইন   

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি মসজিদে নামাজ চলাকালে ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে মসজিদটির ইমাম ও বিশিষ্ট আলেমসহ দুইজন নিহত হয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি এই ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন।

কাবুলের গ্রীন জোনে অবস্থিত বেশ নামকরা মসজিদ ছিলো এটি। চায়না গণমাধ্যম সিনহুয়ার এ খবর দিয়েছে। খবরে বলা হয়, মঙ্গলবার মাগরিবের নামাজের পর কাবুলের ওয়াজির আকবর খান মসজিদে ওই বোমা হামলা হয়।

একজন পুলিশ অফিসার সিনহুয়াকে বলেছেন, ওয়াজির আকবর খান মসজিদটি গ্রীন জোনে অবস্থিত। সেখানে বিভিন্ন দেশের দূতাবাস রয়েছে।

একজন পুলিশ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নিহত বিশিষ্ট আলেমের নাম মোহাম্মদ আয়াজ নিয়াজি। তিনি ইসলামিক স্টাডিজে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন। কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতার পাশাপাশি ওয়াজির আকবর খান মসজিদে ইমামতির দায়িত্বও পালন করতেন বিখ্যাত এই আলেম।মাগরিবের নামাজ শেষে তিনি মসজিদের মূল ভবন থেকে কমপ্লেক্সের অভ্যন্তরের একটি সংলগ্ন ভবনের দিকে হেঁটে যাচ্ছিলেন, সে সময় ওজুখানার ঘরের বাইরে লাগানো একটি বিস্ফোরক ডিভাইস বিস্ফোরণ ঘটে। সেখানে যে ব্যক্তি ওযু করছিলেন সেও মারা গেছেন।'

এ নিয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছে আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান। তিনি জানান, মসজিদটি উচ্চ নিরাপত্তা সম্পন্ন কূটনৈতিক এলাকায় অবস্থিত। সেখানে বেশ কিছু বিদেশি সংস্থা ও দূতাবাস রয়েছে। নিহতের মধ্যে একজন হচ্ছেন মসজিদের ইমাম আয়াজ নিয়াজি। তিনি প্রথমে গুরুতর আহত হন। পরে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এখনো কোনো জঙ্গি গোষ্ঠি এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তালেবানের পাশাপাশি দেশটিতে সম্প্রতি ইসলামিক স্টেটও সক্রিয় হয়ে উঠেছে। আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

সূত্র- সিনহুয়া।