ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

ব্রিটেনে সিলেটের দুই তরুণের এ্যাওয়ার্ড লাভ

http://www.pbd.news/selected/74711/ব্রিটেনে-সিলেটের-দুই-তরুণের-এ্যাওয়ার্ড-লাভ
BYকবির আল মাহমুদ, স্পেন
প্রকাশ:  ১২ অক্টোবর ২০১৮, ১৩:০০

ব্রিটেনের কারী শিল্পের মূল কারিগর সেফদের সম্মাননা জানিয়ে অনুষ্ঠিত হলো কারী লাইফ অ্যাওয়ার্ড’র ৯ম আসর। সেন্ট্রাল লন্ডনের ল্যাংকাসটার হোটেলে ৭ অক্টোবর রোববার অনুষ্ঠিত জমকালো এই আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন ব্রিটিশ এমপি, লর্ড, শীর্ষ ব্যবসায়ী, সাংবাদিক এবং কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

এবছর বেস্ট টেইকওয়ে এওয়ার্ড লাভ করে এসেক্স এর কেপটেন কুরমা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন কেপটেন কুরমার দুই তরুণ পরিচালক আবু সাঈদ চৌধুরী শাকিল ও মামুনুর রশিদ চৌধুরী। আবু সাঈদ চৌধুরী শাকিলের বাড়ি সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলায় ও মামুনুর রশিদ চৌধুরীর বাড়ি সিলেটের বিয়ানীবাজার উপযেলায়। স্বল্প সময়ের মধ্যে দুই তরুণ টেইকওয়ে ব্যাবসা শুরু করে লন্ডনে জনপ্রিয় করে তুলে। তাদের এই সাফল্য নতুন প্রজন্মের ব্রিটিশ বাঙালিদের কাছে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে মনে করেন আয়োজকরা।

এছাড়া বেস্ট রেস্টুরেন্ট অ্যাওয়ার্ড লাভ করে লন্ডনের মাসতে রেস্টুরেন্ট, কেন্টের সুজনা ইন্ডিয়ান এন্ড বাংলাদেশি কুজিন, ওয়াকফিল্ডের সিনেমন

কারী লাইফ ম্যাগাজিনের সম্পাদক সাংবাদিক সৈয়দ বেলাল আহমেদ এবং লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাহাস পাশার তত্ত্বাবধানে কারী লাইফ অ্যাওয়ার্ড ব্রিটেনের কারী শিল্পকে মূলধারায় তুলে ধরতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এক যুগেরও অধিককাল ধরে কারী লাইফ ম্যাগাজিন কারী শিল্পের খুটিনাটি তুলে ধরছে। এরপর শুরু হওয়া কারী লাইফ এওয়ার্ড বরাবরই রেস্টুরেন্টখাতে শ্রেষ্ঠত্বেও মাপকাঠি হিসেবে সুধীমহলে সমাদৃত হয়েছে। এবারও রেস্টুরেন্টের প্রধান চালিকাশক্তি হিসেবে যারা কাজ করেন সেই সেফদের সম্মানিত করা হয়েছে। পাশাপাশি সম্মাননা জানিয়ে অনুপ্রাণিত করা হয়েছে রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীদেরও।

এছাড়া এবার ব্যতিক্রম ছিল ওয়াল্ড কারী এক্সপো। একই ছাদের নিচে এককভাবে কারি ব্যবসাকে কেন্দ্র করে ক্রেতা বিক্রেতাদের যুগসূত্র স্থাপনের জন্য এ ধরণের একটি এক্সপো বা মেলার আয়োজন লন্ডনে অনন্য। “ওয়ার্ল্ড কারি এক্সপোতে ভিজিটরদের জন্য নানা অফার নিয়ে ক্যাটারিং ট্রেডের সাথে সংশ্লিষ্ট সাপ্লায়াররা স্টল সাজিয়ে বসেন। অনলাইন অর্ডারিং কোম্পানী জাষ্ট ইট ছিলো ওয়ার্ল্ড কারি এক্সপোর মূল স্পন্সর এবং সহযোগি স্পন্সর হিসাবে ছিলো কোবরা, শিভাস, ইউনিসফট সলিউশন এবং ট্রেভেল লিংক। এবার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন চ্যানেল ফোর এর বিখ্যাত প্রেজেন্টার জন স্নো । অতিথি হিসেবে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ব্রিটিশ বাংলাদেশি এমপি রোশনারা আলী, রূপা হক, সাবেক হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীসহ ব্রিটিশ বাংলাদেশি সেলিব্রেটিরা।

অনুষ্ঠানে কারী লাইফ আন্তর্জাতিক সম্মাননা অ্যাওয়ার্ড পান হিলটন সিংঙ্গাপুরের চীফ এক্সিকিউটিভ কাজী হাসান। এছাড়া কারী লাইফ অ্যাওয়ার্ড এবছর থেকে চালু করা হয়েছে বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি মরহুম মোহাম্মদ আব্দুর রহিমের নামে কারী লাইফ এম এ রহিম স্মৃতি অ্যাওয়ার্ড। এই অ্যাওয়ার্ড পান কমিউনিটি নেতা ইউকেবিসিআিই এর প্রেসিডেন্ট ও বিসিএ’র সাবেক সভাপতি বজলুর রশিদ এমবিই।

এবার বেস্ট শেফ অ্যাওয়ার্ড যারা পেয়েছেন তারা হচ্ছেন ওয়ারদিং এর মহান রেস্টুরেন্টের আসকর আলী, কেমব্রিজের দি ইন্ডিয়ান ওশান রেস্টুরেন্টের শেফ আব্দুল হাই, কেন্টের ক্লিফ রেস্টুরেন্টের শেফ শেখ কামরুল ইসলাম, নিউপোর্ট এর টেস্ট অফ প্যারাডাইস এর শেফ আলম হোসেন, হার্ডফোর্ড শায়ারের মার্কইয়েট স্পাইস এর শেফ আনসার মিয়া, হারো এলাকার হাককাল্যান্ড রেস্টুরেন্টের শেফ স্টিভেন লী।

ওএফ