ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১ কার্তিক ১৪২৬
BY  অনলাইন ডেস্ক ০৪ অক্টোবর ২০১৮, ১৩:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

প্রতীকী ছবি ওজন কমলে সবার আগে তার প্রভাব মুখে এসে পড়ে। ঠিক তেমনি ওজন বাড়লেও তার প্রভাব মুখ দেখে বোঝা যায়। মুখ ভারি দেখায়, গাল ফুলে যায়, বিশেষ করে থুতনির কাছে মেদ জমে ডাবল চিন দেখা যায়। মুখে এবং থুতনির নীচে অতিরিক্ত চর্বি জমলে চেহারার আকার নষ্ট হয়। আর এই সমস্যা থেকে রক্ষা পাওয়ার সবচেয়ে সহজ এবং সুলভ উপায় হচ্ছে মুখের ব্যায়াম।

চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক মুখ ও থুতনির নীচে জমা অতিরিক্ত চর্বি ঝরানোর চারটি কার্যকরী ব্যায়াম...

১.মুখ যতটা সম্ভব খোলার চেষ্টা করুন যতক্ষণ না গালে, ঠোঁটে ও থুতনিতে চাপ অনুভব করছেন। এরপর ১০-১৫ সেকেন্ড বিরতি নিন। দিনে পাঁচ মিনিট এই পদ্ধতিতে ব্যায়াম করুন। এর ফলে মুখের রক্ত সঞ্চালন বেড়ে যায় যা অতিরিক্ত মেদ কমাতে সাহায্য করে।

২.ধীরে ধীরে মাথা পেছন দিকে হেলান যতক্ষণ না ঘাড়ে চাপ অনুভব করছেন। এ বার চোয়াল ডান দিক থেকে বাঁ দিক এবং বাঁ দিক থেকে ডান দিকে নড়াবার চেষ্টা করুন। দিনে ২-৩ মিনিট করে অন্তত পাঁচবার এই ব্যায়াম করতে পারলে ঘাড় ও গলার মাসল টোন হবে, অতিরিক্ত মেদও কমে যাবে।

৩.চোখ বন্ধ করে চোখের পাতায় আঙুল রাখুন। এরপর চোখের পাতা নিচের দিকে নামানোর সঙ্গে ভ্রু ওপরে তোলার চেষ্টা করুন। এতে কপাল টোনড হবে। প্রতিদিন ৫ মিনিটের জন্য এই পদ্ধতিতে ব্যায়াম করুন।

অনেক সময় চোখের তলায় মেদ জমে যায়। এই মেদ কমাতে চোখ বন্ধ করে বিরতি নিন। এবার চোখ বন্ধ অবস্থায় চোখের মণি ওপরে তুলুন এবং নিচে নামান। ১৫ মিনিট ধরে এই ব্যায়াম করতে হবে। এবার চোখ বন্ধ অবস্থাতে যতটা সম্ভব ভ্রু ওপরের দিকে তোলার চেষ্টা করুন। চোখ না খুলে প্রতিদিন অন্তত ১০ মিনিট এই ব্যায়ামটি করুন।

৪.মুখের মধ্যে আঙুল ঢুকিয়ে যতটা সম্ভব জোরে চুষুন। এই ভঙ্গিতে মুখের ভেতরে হাওয়া টেনে গাল দু'টোকে যতটা সম্ভব সংকুচিত করুন (অনেকটা সেলফি তোলার সময় পাউট করার মতো)। প্রতিদিন অন্তত দশবার যদি এই পদ্ধতিতে ব্যায়াম করতে পারেন, তাহলে গালের ফোলাভাব অনেকটাই কমে যাবে।

এবার মাথা পেছন দিকে হেলিয়ে হাত দিয়ে গালের ওপর চাপ সৃষ্টি করুন। একইসঙ্গে যতটা সম্ভব মুখ বন্ধ করে হাসার চেষ্টা করুন। ১০ মিনিট এই ব্যায়াম করতে পারলে গাল থেকে অতিরিক্ত মেদ কমে যাবে।