ঢাকা, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

রং ফর্সাকারী ক্রিম ব্যবহারে ত্বকের রোগের ঝুঁকি

https://www.ntvbd.com/lifestyle/242515/রং-ফর্সাকারী-ক্রিম-ব্যবহারে-ত্বকের-রোগের-ঝুঁকি
BYফিচার ডেস্ক
১৫ মার্চ ২০১৯, ১৮:৫২ | আপডেট: ১৬ মার্চ ২০১৯, ১০:৩০

রং ফর্সাকারী ক্রিম থেকে ত্বকে র‍্যাশ হতে পারে। ছবি : সংগৃহীত ফর্সা ত্বক সৌন্দর্যের প্রতীক—এমন একটি ধারণা সমাজে প্রচলিত রয়েছে। আর এ জন্য অনেক নারী-পুরুষ রং ফর্সা করার পেছনে ছুটতে থাকে; ব্যবহার করে বিভিন্ন রং ফর্সাকারী ক্রিম। তবে এসব ক্রিম কি ত্বকের জন্য ভালো?

এ বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৩৭৩তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. ফারিয়াল হক। বর্তমানে তিনি প্রেসক্রিপশন পয়েন্টে চর্ম ও যৌন বিভাগের পরামর্শক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : রং ফর্সাকারী ক্রিম ব্যবহারে কি ত্বকের ক্ষতি হতে পারে?উত্তর : অবশ্যই ক্ষতি হবে। কারণ, রং ফর্সাকারী ক্রিমগুলোর মধ্যে ক্ষতিকর স্টেরয়েড দেওয়া থাকে। এগুলো ব্যবহারে ত্বকটা আস্তে আস্তে এর প্রতি আসক্ত হয়ে যাবে। যখন এটা হঠাৎ করে ব্যবহার বন্ধ করে দেবে, তখন ত্বক প্রতিক্রিয়া দেখাবে। অথবা যদি দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার করতে থাকে, তাহলে ব্যবহার করা অবস্থাতেও ত্বক প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারে। এটা করবেই।

আমাদের প্র্যাকটিস জীবনে প্রচুর রোগী এ রকম আসছে, ত্বক ফর্সাকারী ক্রিম লাগিয়েছি, হয় মেছতা হয়েছে বা ত্বকে র‍্যাশ হয়েছে। অথবা ব্ল্যাক পিম্পল হচ্ছে, ব্রণের মুখটা বন্ধ থাকছে। একে আমরা স্টেরয়েড ফেস বলি। এ ধরনের সমস্যা নিয়ে কিন্তু প্রতিনিয়ত আমাদের কাছে রোগীরা আসছে।

এই জন্য আমি বলব, ওপরওয়ালা আমাদের যে ত্বক দিয়েছেন, সেটিকে মেনে নিতে হবে। একে সুন্দর করে গুছিয়ে রাখতে হবে।

এরপরও আমি বলব, কিছু চিকিৎসা রয়েছে। কোনো মেয়ের হয়তো বিয়ে হচ্ছে না কেবল রঙের জন্য, কিছু নারী রয়েছেন যাঁরা সংসার করছেন, তবে তালাক হয়ে যাচ্ছে বা তালাক হওয়ার পথে রয়েছে শুধু গায়ের রঙের জন্য। তখন আমরা না পেরে হয়তো একটি চিকিৎসা করি, এর নাম হলো গ্লুটাথাইওয়ান। এটি আমরা মুখে খাওয়ার জন্যও দিয়ে থাকি। ইনজেকশনের মাধ্যমেও দিয়ে থাকি।