ঢাকা, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

জাতীয় পরিচয়পত্র পাচ্ছেন না ১ কোটি ভোটার

http://dainikamadershomoy.com/bangladesh/142415/জাতীয়-পরিচয়পত্র-পাচ্ছেন-না-১-কোটি-ভোটার
BY  নিজস্ব প্রতিবেদক ১১ জুন ২০১৮, ২৩:২১ | অনলাইন সংস্করণ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) পাচ্ছেন না দেশের ১ কোটি ভোটার। স্থানীয় সরকারের নির্বাচনের মতো সংসদ নির্বাচনে এনআইডি ছাড়াই ভোট দিতে হবে তরুণ ভোটারদের।

এদিকে জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকায় তাদের ব্যাংক হিসাব, সিম নিবন্ধনসহ বিভিন্ন নাগরিক সেবাগ্রহণে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। যদিও গত ফেব্রুয়ারি থেকে নতুন ভোটারদের এনআইডি প্রদানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল ইলেকশন কমিশন (ইসি)। কিন্তু বেসরকারি প্রতিষ্ঠান স্মার্ট টেকনোলজিস বিডি সঠিকভাবে লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র উৎপাদন না করতে পারায় ব্যর্থ হয় ইসি।

এ কারণে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চুক্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে ইসি। কমিশন অনুমোদন দিলে লিখিতভাবে চুক্তি বাতিল করা হবে।

গত ১৮ই জানুয়ারি কমিশন সভা শেষে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘২০১২ সালে যারা ভোটার হয়েছেন এবং এখনও কোনও জাতীয় পরিচয়পত্র পাননি, ফেব্রুয়ারির ১ তারিখ থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে তাদেরকে লেমনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়া হবে। ২০১২ সালের পরে নিবন্ধিত নতুন এসব ভোটারকে স্মার্টকার্ড দেওয়ার লক্ষ্য থাকলেও তা প্রস্তুত করা নিয়ে জটিলতায় একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগে স্মার্ট কার্ড দিচ্ছি না।’

জানা গেছে, ২০১৭ সালের নভেম্বরে স্মার্ট টেকনোলজিস বিডি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে প্রথমিক ভাবে ৯৩ লাখ লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র উৎপাদনের জন্য চুক্তি করে ইসি। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে ৮ কোটি ৯৬ লাখ ২৮ হাজার ৪০০ টাকা চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ি গত ফেব্রুয়ারি থেকে লেমনেটেড কার্ড ইসির কাছে সরবরাহ করার কথা প্রতিষ্ঠানটির। কিন্ত ওই প্রতিষ্ঠানের সরবরাহকৃত কার্ড অতি নিম্নমানের। কার্ড তৈরির কাগজে ময়লার দাগ পাওয়া যায়। প্রিন্টের মানও খারাপ। ইসির অভ্যন্তরীণ তদন্তে কার্ড প্রিন্টে প্রতিষ্ঠানটির খামখেয়ালীপনার প্রমাণ মিলেছে। এ কারণে ইসি তাদের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করতে যাচ্ছে।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, ইসির লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ার সিদ্ধন্ত এখন ব্যস্তবায়ন হচ্ছে না। স্মার্ট টেকনোলজিস বিডি লিমিটেডের নিম্নমানের কার্ড ইসি না নেওয়ায় একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে কোটি নাগরিক জাতীয় পরিচয়পত্র পাচ্ছেন না।

২০০৮ সালে ছবিসহ ভোটার তালিকা প্রণয়নের পর নবম সংসদে ভোটার ছিল ৮ কোটি ১০ লাখেরও বেশি। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের সময় দশম সংসদে ভোটার ছিল ৯ কোটি ১৯ লাখের বেশি। বর্তমানে ১০ কোটি ৪৩ লাখেরও বেশি নাগরিক ভোটার তালিকাভুক্ত রয়েছেন। দেশে নয় কোটি নাগরিকের হাতে স্মার্ট কার্ড তুলে দেওয়ার কার্যক্রম চলছে। তবে ২০১২ সালের পর থেকে ভোটার তালিকায় যুক্ত প্রায় সোয়া কোটি ভোটারকে লেমিনেটেড কার্ড দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ইসি।