ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
BYনিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস

সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য যা যা করার দরকার এর সবই করবেন বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

মঙ্গলবার আগারগাঁও নির্বাচন ভবনের অডিটোরিয়ামে এক আলোচনা সভায় তিনি এই কথা জানান।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি উপলক্ষে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাদের সঙ্গে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে নির্বাচন কমিশন।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করে নূরুল হুদা বলেন, 'সাংবিধানিক পদ্ধতিতে নিরপেক্ষভাবে, অবাধে, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য যা যা করা প্রয়োজন, তা আমরা করব।’

নির্বাচন পরিচালনার ক্ষেত্রে যেসব সমস্যা আছে, তা এই আলোচনা সভায় আলোচনার পরামর্শ দেন সিইসি।

নূরুল হুদা বলেন, 'জাতীয় নির্বাচনের সময় একটা আবহ তৈরি হয়। কারণ এই নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তন হয়। ভোটারদের নিরাপত্তা, প্রার্থীদের আচরণবিধি মেনে চলা, সুশীল সমাজের পরামর্শ গ্রহণ, অন্য অংশীজনদের পরামর্শ গ্রহণ এবং আপনাদের বুদ্ধি-বিবেচনা কাজে লাগিয়ে প্রত্যাশিত নির্বাচনটি আপনারা জাতিকে উপহার দেবেন।'

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তন হয়। ভোটারদের নিরাপত্তা, প্রার্থীদের আচরণবিধি মেনে চলাসহ যাবতীয় বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে৷’ নির্বাচনের দায়িত্ব পালনে কর্মকর্তাদের প্রভাবিত না হওয়ারও নির্দেশনা দেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম, মাহবুব তালুকদার, বেগম কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদত হোসেন চৌধুরী। সভাপতিত্ব করবেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

(ঢাকাটাইমস/১৬অক্টোবর/জেআর/জেবি)