ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
BYনিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস

ফাইল ছবি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের রূপ ধারণ করে ‘বুলবুল’ ধেয়ে আসছে বাংলাদেশের দিকে। সুন্দরবনের ভেতর দিয়ে এটি বাংলাদেশে ঢুকতে পারে। খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের ১৪টি জেলায় এই ঘূর্ণিঝড় তার ভয়াল থাবা বিস্তার করতে পারে।

তবে এটি ঘনঘন গতিপথ পরিবর্তন করছে। শেষ পর্যন্ত কোন দিকে আঘাত হানে সেটা এখনো সুনির্দিষ্ট করে বলতে পারছেন না আবহাওয়াবিদরা।

শনিবার সকালে আবহাওয়া অধিদপ্তর মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরসহ নয়টি জেলায় ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলেছে। এছাড়া চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরসহ পাঁচটি জেলাকে ৯ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলেছে।

১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা ৯টি জেলা হচ্ছে- ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা ও সাতক্ষীরা।

১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে, বন্দর প্রচণ্ড বা সর্বোচ্চ তীব্রতার ঝঞ্জাবহুল ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়তে পারে। ঝড়ো বাতাসের একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার বা তার চেয়েও বেশি হতে পারে। প্রচণ্ড ঝড়টি বন্দরের ওপর বা নিকট দিয়ে উপকূল অতিক্রম করবে। এ সময় সাত ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাস হওয়ারও শঙ্কা রয়েছে।

এছাড়া যে পাঁচটি জেলাকে ৯ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলেছে সেগুলো হলো- চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর ও ফেনী।

৯ নম্বর বিপদ সংকেতের ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে বন্দর প্রচণ্ড বা সর্বোচ্চ তীব্রতার ঝঞ্জাবিক্ষুব্ধ ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়তে পারে। ঝড়ো বাতাসের একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিমি বা তার চেয়েও বেশি হতে পারে। এ বেলায় প্রচণ্ড ঝড়টি বন্দরকে ডান দিকে রেখে উপকূল অতিক্রম করবে।

(ঢাকাটাইমস/০৯নভেম্বর/জেবি)