ঢাকা, শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ৮ মাঘ ১৪২৭

করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২২৯২

https://www.ppbd.news/https:/ppbd.news/national/181728/করোনায়-২৪-ঘণ্টায়-৩৭-জনের-মৃত্যু,-আক্রান্ত-২২৯২
BYনিজেস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ:  ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১৫:২৫ | আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১৫:৪৫

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সর্ব সাধারণের মাস্ক পরা নিশ্চিতে বৃহস্পতিবার ভ্রম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে র‌্যাব। (ছবি:- শাহবাগ থেকে তোলা) দেশে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৫২৪ জনে।

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সম্পর্কিত খবর

এছাড়া, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২ হাজার ২৯২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনা শনাক্ত হলো মোট ৪ লাখ ৫৬ হাজার ৪৩৮ জনের।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১১৮টি ল্যাবরেটরিতে ১৬ হাজার ৪৯৪টি নমুনা সংগ্রহ ও ১৭ হাজার ৫৩২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ সময়ে করোনা আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হন আরও দুই হাজার ২৯২ জন। দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল চার লাখ ৫৬ হাজার ৪৩৮ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ২৭৪ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৭১ হাজার ৪৫৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১৩ দশমিক শূন্য ৪৪ শতাংশ। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৮২ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮১ দশমিক ৩৮ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৩ শতাংশ।

দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় ৮ মার্চ। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ১৮ মার্চ। আজ পর্যন্ত মোট মৃত্যু ছয় হাজার ৫২৪ জনের। তাদের মধ্যে পুরুষ পাঁচ হাজার ৭ জন (৭৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ) ও নারী এক হাজার ৫১৭ জন (২৩ দশমিক শূন্য ২৫ শতাংশ)।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, মৃত ৩৭ জনের মধ্যে দশোর্ধ্ব একজন, ত্রিশোর্ধ্ব একজন, চল্লিশোর্ধ্ব দুইজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব আটজন এবং ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ২৫ জন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩৭ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২৯ জন, চট্টগ্রামে তিনজন, রাজশাহীতে তিনজন এবং রংপুরে দুইজন রয়েছেন।

এদিকে বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৬ কোটি ছাড়িয়েছে। এছাড়া করোনায় মৃতের সংখ্যা ১৪ লাখ ১৯ হাজারেরও বেশি। প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৬ কোটি ২ লাখ ৭৬ হাজার ৯৫১ জন। এ পর্যন্ত মারা গেছেন ১৪ লাখ ১৯ হাজার ৫৬৭ জন।

জেএইচইউ’র পরিসংখ্যান বলছে, এদিন সকাল পর্যন্ত সারা বিশ্বে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন ৩ কোটি ৮৬ লাখ ৩৪ হাজার ৭৫২ ব্যক্তি। গত বছর চীনের ‍উহানে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। পরে চলতি বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে মহামারি ঘোষণা করে। এর আগে ২০ জানুয়ারি জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

নতুন এই ভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত ১ কোটি ২৭ লাখ ৬৯ হাজার ৯১৫ জনে দাঁড়িয়েছে এবং ২ লাখ ৬২ হাজার ১৩২ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। পৃথিবীর দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারত রয়েছে করোনা আক্রান্ত দেশের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে। ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল আক্রান্ত দেশের তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকলেও সর্বাধিক মৃতের সংখ্যায় রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে মোট আক্রান্ত ৯২ লাখ ২২ হাজারেরও বেশি মানুষ এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৩৪ হাজার ৬৯৯ জন। ব্রাজিলে মোট শনাক্ত রোগী ৬১ লাখ ১৮ হাজার ৭০৮ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার ১১৫ জনের।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে বুধবার পাঠানো করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে আরো ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৪৮৭ জনে।

এছাড়া, নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ১৫৬ জনের শরীরে। যার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৫৪ হাজার ১৪৬ জনে পৌঁছেছে।

এদিকে মেক্সিকোতেও মৃত্যুর সংখ্যা লাখ ছাড়িয়েছে। সেখানে মোট মারা গেছেন ১ লাখ ৩ হাজার ৫৯৭ জন। ফ্রান্সে করোনা আক্রান্ত ২২ লাখ এবং রাশিয়ায় ২১ লাখ ছাড়িয়েছে।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, দেশের সরকারি ও বেসরকারি ১১৭ ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৫ হাজার ৭৭৭টি এবং পরীক্ষা করা হয়েছে আগের নমুনাসহ ১৬ হাজার ১টি। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ২৬ লাখ ৯৬ হাজার ১৫০টি।

নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪৭ শতাংশ। আর মোট পরীক্ষায় এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ১৬ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

নতুন যে ৩৯ জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ২৭ এবং নারী ১২ জন। এখন পর্যন্ত মোট মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৪ হাজার ৯৮২ জন বা ৭৬ দশমিক ৮ শতাংশ এবং নারী ১ হাজার ৫০৫ জন বা ২৩ দশমিক ২ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মোট মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

এদিকে, করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন আরো ২ হাজার ৩০২ জন। এ নিয়ে দেশে মোট সুস্থ ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৬৯ হাজার ১৭৯ জনে। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮১ দশমকি ২৯ শতাংশ।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

পূর্বপশ্চিমবিডি/জিএস