ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
BY  আইটি ডেস্ক ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ২১:২৯ | অনলাইন সংস্করণ
ক্যাম্পেইন উপলক্ষে দারাজ বাংলাদেশের সংবাদ সম্মেলন। ছবি: সংগৃহীত দেশের বৃহত্তম ই-কমার্স কোম্পানি দারাজ বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো নিয়ে এলো 'বিশ্বের বৃহত্তম সেল ডে'- ১১.১১ (11.11)।

নতুন দারাজ অ্যাপ চালু হওয়ার পর এই মেগা ইভেন্টের সময় গ্রাহকরা প্রকৃতপক্ষে পারসনালাইজড এবং সুপারচার্জড লাইনআপ আশা করতে পারেন।

দারাজ ১১.১১ এমন একটি ইভেন্ট যা অন্য সব ইভেন্টের চেয়ে আলাদা। এবং এটি দেশীয় ই-কমার্সে বিপ্লব ঘটাতে সক্ষম।

২০০৯ সালে আলিবাবা ১১.১১ চালু করেছিল। এক দশক পরে ১১.১১ বাংলাদেশে যাত্রা শুরুর জন্য প্রস্তুত।

ক্যাম্পেইনটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় অনলাইন কেনাকাটা উৎসব। এটি ‘অ্যামাজন প্রাইম ডে’-এর তুলনায় ১৮ গুণ বড় এবং ব্ল্যাক ফ্রাইডের তুলনায় আড়াই গুণ বড়।

১ দিনের এই ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে সর্বোচ্চ ৮৩ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যছাড় পাওয়া যাবে দারাজে। এই ইভেন্টের বিশেষ আকর্ষণ হলো- ১১ টাকায় ডিল, মিস্ট্রি বক্স, ডাবল টাকা ভাউচার, ফ্ল্যাশ সেল, ব্র্যান্ড ভাউচার, ব্যাংক ডিসকাউন্ট এবং আরও অনেক কিছু।

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিতব্য এই বিশাল ক্যাম্পেইন উপলক্ষে দারাজ বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ মোস্তাহিদল হক বলেন, ‘দারাজ অ্যাপ আপনার জন্য কী নিয়ে এসেছে তা একবার বুঝে গেলে আপনি পরিষ্কারভাবে অনুভব করতে পারবেন- ১১.১১ এর আগের এবং পরের দারাজের মধ্যকার আকাশ-পাতাল পার্থক্য। এবারের ক্যাম্পেইনটি বাংলাদেশের ই-কমার্স ইতিহাসে একটি অভিনব দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে। ১১.১১ ক্যাম্পেইনটি শুধুমাত্র ডিল এবং ছাড়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। এটি আমাদের সমগ্র ডিজিটাল ইকোসিস্টেমের মধ্যে আনবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সহায়তায় পার্সোনালাইজেশন, বিনোদন, আকর্ষণীয় ডিল, সুরক্ষিত পেমেন্ট সমাধান এবং ৪ লাখেরও বেশি একটি পণ্যভাণ্ডার।’