ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৬

হঠাৎ গরমে ওয়ালটন এসির বিক্রি চরমে

https://www.jugantor.com/tech/58956/হঠাৎ-গরমে-ওয়ালটন-এসির-বিক্রি-চরমে
BY  যুগান্তর ডেস্ক ১১ জুন ২০১৮, ১৮:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ
ছবি: যুগান্তর হঠাৎ করেই বেড়েছে গরম। গ্রীষ্মের প্রখর উত্তাপে চলতি মাসের শুরু থেকে গরম পড়লেও গত কয়েক দিনে গরম বেশ বেড়েছে। অসহনীয় গরমে প্রশান্তি পেতে সামর্থ্যবানরা ছুটছেন এয়ার কন্ডিশনার বা এসির শোরুমে। ফলে দেশব্যাপী হঠাৎ করে বেড়েছে এসি বিক্রি।

বিক্রেতাদের মতে, দেশে তৈরি ওয়ালটন ব্র্যান্ডের এসিই বেশি বিক্রি হচ্ছে। তবে ঈদ এবং গরম দুটি বিষয়কে সামনে রেখে ওয়ালটনের এসি বিক্রি আরও বাড়বে বলে কর্তৃপক্ষের আশাবাদ।

ওয়ালটন সূত্রমতে, গত বছরের জানুয়ারি থেকে মে মাসের তুলনায় চলতি বছরের প্রথম পাঁচ মাসে ৩০ শতাংশেরও বেশি এসি বিক্রি হয়েছে। এই বিক্রি বৃদ্ধিতে অবদান রেখেছে ওয়ালটনের নতুন মডেলের ইনভার্টার প্রযুক্তির ১.৫ টন ও ২ টনের স্মার্ট এসি।

পাশাপাশি দেশীয় প্রতিষ্ঠানটির ৫ টনের ক্যাসেট টাইপ কমার্শিয়াল এসিও ভালো বিক্রি হচ্ছে।

জানা গেছে, গত মাসে স্থানীয় বাজারে ২ টনের নতুন মডেলের ইনভার্টার এসি ও ৫ টনের ক্যাসেট টাইপ কমার্শিয়াল এসি বাজারে এনেছে ওয়ালটন। বাজারে ছাড়ার অল্প কয়েক দিনের মধ্যেই গ্রাহকপ্রিয়তার শীর্ষে উঠে এসেছে ওয়ালটনের নতুন মডেলের এসব এসি।

গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায় তৈরি এসি বিএবি স্বীকৃত নাসদাত ইউটিএস টেস্টিং ল্যাবে মান নিয়ন্ত্রণ করে বাজারে ছাড়া হচ্ছে।

নতুন মডেলের এসব এসিতে আয়োনাইজার প্রযুক্তি ব্যবহার করায় রুমের বাতাস থাকে ধুলাময়লা ও ব্যাকটেরিয়ামুক্ত। পাশাপাশি ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসার ব্যবহার করায় বিদ্যুৎ সাশ্রয় হচ্ছে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত।

এছাড়াও, গ্রাহক বিশ্বের যে কোনো প্রান্তে বসে মুঠোফোনের মাধ্যমে পরিচালনা করতে পারেন ওয়ালটনের স্মার্ট এসি। এসব সুবিধার পাশাপাশি বাজারে একমাত্র ওয়ালটন এসিতেই রয়েছে সঠিক বিটিইউ’র নিশ্চয়তা ও ছয় মাসের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি সুবিধা। মূলত, এসব সুবিধার প্রেক্ষিতে গ্রাহক পছন্দের শীর্ষে রয়েছে ওয়ালটন এসি।

ওয়ালটন এসির সেলস বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, বাংলাদেশের আবহাওয়া উপযোগী অসংখ্য মডেলের এসি উৎপাদন ও বাজারজাত করছে ওয়ালটন।

এর মধ্যে ইনভার্টার প্রযুক্তির ১৮ হাজার বিটিইউ (দেড় টন) ও ২৪ হাজার বিটিইউ (দুই টন) ওয়ালটন স্মার্ট এসির দাম পড়ছে যথাক্রমে ৬৫ হাজার ও ৭৮ হাজার টাকা।

শুধুমাত্র ইনভার্টার প্রযুক্তির দেড় টন ও দুই টন এসির দাম যথাক্রমে ৬৩ হাজার ৫০০ টাকা ও ৭৬ হাজার ৫০০ টাকা।

আবার আয়োনাইজার প্রযুক্তির দেড় ও দুই টনের এসি পাওয়া যাচ্ছে যথাক্রমে ৪৯ হাজার ৯০০ ও ৫৬ হাজার ৯০০ টাকায়।

১৭ হাজার ২০০ বিটিইউ ওয়ালটন এসি মিলছে ৪৫ হাজার ৯০০ টাকায়। আর ১২ হাজার (এক টন) বিটিইউ’র ওয়ালটন এসি পাওয়া যাচ্ছে ৩৫ হাজার ৯০০ টাকায়।