ঢাকা, রবিবার, ২২ এপ্রিল ২০১৮, ৯ বৈশাখ ১৪২৫

রায় ঘোষণার দেড় বছর পর কপি পেল জিপিইইউ

https://www.jugantor.com/tech/6412/রায়-ঘোষণার-দেড়-বছর-পর-কপি-পেল-জিপিইইউ
BY  এম. মিজানুর রহমান সোহেল ১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ১৪:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ
দীর্ঘ দেড় বছর আইনী লড়াইয়ের পর আদালতের রায় পেল গ্রামীণফোন অ্যামপ্লয়ীজ ইউনিয়ন (জিপিইইউ)। ২০১৬ সালের ৩০ জুন প্রকাশ্য আদালতে জিপিইইউ-এর পক্ষে রায় ঘোষণা করেন শ্রম আপীল ট্রাইবুনাল আর রায়ের সার্টিফাইড কপি পেতে সময় লেগেছে দেড় বছরের অধিক সময়।

রায়ের সার্টিফাইড কপি পেতে জিপিইইউ এর পক্ষে তাদের আইনজীবী ৬ বার আবেদন করলেও কোন লিখিত কপি দেয়া হয়নি। অবশেষে জিপিইইউ-এর পক্ষে হাইকোর্টে একটি রীট মোকদ্দমা দায়ের করা হয়, যার নম্বর ১৭১৯৭/২০১৭। রীটের শুনানী শেষে আালত এক মাসের মধ্যে রায়ের কপি দেয়ার জন্য নির্দেশনা দেন।

এর আগে ২০১২ সালের ১৩ জুন জিপিইইউ গঠিত হয় এবং ২০১২ সালের ২৩ জুলাই রেজিষ্ট্রেশননের জন্য রেজিষ্ট্রার অব ট্রেড ইউনিয়ননের অফিসে দরখাস্ত দাখিল করা হয়। শ্রম আইনানুযায়ী ইউনিয়নকে ভুল সংশোধনের কোন নোটিশ প্রাদান না করে ৪ কর্মদিবসের মধ্যে ২০১২ সালের ২৯ জুলাই জিপিইইউ-এর রেজিষ্ট্রেশনের আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হয়।

২০১২ সালের ২৬ আগষ্ট উক্ত আবেদন প্রত্যাখ্যানের বিরুদ্ধে জিপিইইউ দ্বিতীয় শ্রম আদালত, ঢাকায় একটি আপীল দায়ের করেন এবং দ্বিতীয় শ্রম আদালত, ঢাকা আপীল শুনতে বিব্রত বোধ করে বিষয়টি শ্রম আপীল ট্রাইবুনালে প্রেরণ করেন। শ্রম আপীল ট্রাইবুনাল শুনানী শেষে ২০১৪ সালের ২১ জুলাই জিপিইইউ-এর পক্ষে ট্রেড ইউনিয়নের রেজিষ্ট্রেশন প্রদানের আদেশ দেন।

শ্রম আপীল ট্রাইবুনালের রায়ের বিরূদ্ধে গ্রামীণফোন লিমিটেড ৭৬০০/২০১৪ নং রীট মোকদ্দমা দায়ের করেন। শুনানী শেষে মহামান্য আালত শ্রম আপীল ট্রাইবুনালের রায় বাতিলপূর্বক জিপিইইউ-এর আপীল মোকদ্দমাটি শ্রম আদালতে প্রেরণ করার নির্দেশ দেন।

শ্রম আপীল ট্রাইবুনাল উক্ত আপীল মোকদ্দমাটি প্রথম শ্রম আদালতে প্রেরণ করলে পরে প্রথম শ্রম আদালত শুনানী শেষে ২০১৫ সালের ১৫ এপ্রিল আপীলটি খারিজ করে দেন। এরপর জিপিইইউ প্রথম শ্রম আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে শ্রম আপীল ট্রাইবুনালে আপীল দায়ের করলে পরে আদালত শুনানী শেষে ২০১৬ সালের ৩০ জুন প্রকাশ্য আদালতে জিপিইইউ-এর পক্ষে রায় দেন।

অবশেষে গত ৯ জানুয়ারি রায়ের কপি পাওয়ার পর জিপিইইউ-এর পক্ষে সাধারণ সম্পাদক মিয়া মোহাম্মাদ শাফিকুর রহমান মাসুদ ১০ জানুয়ারি রেজিষ্ট্রার অব ট্রেড ইউনিয়ন বরাবরে রেজিষ্ট্রেশন প্রদানের জন্য আবেদন করেছেন; যা শ্রম আইনানুযায়ী ৭ দিনের মধ্যে রেজিষ্ট্রেশন সার্টিফিকেট প্রদান করবেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জিপিইইউ-এর একজন নেতা যুগান্তরকে বলেন, দীর্ঘ পাঁচ বছরের অধিক সময় লেগেছে শুধুমাত্র রায় পেতে। আমরা আশংকা করছি জিপিইইউ এর রেজিষ্ট্রেশন বিলম্বিত করার উদ্দেশ্যে কোন কোন মহল অপচেষ্টা চালাতে পারে।