ঢাকা, সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮, ১ শ্রাবণ ১৪২৬
BY  আইটি ডেস্ক ১২ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ
দেশে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর অধিকাংশই তরুণ। আর তাদের একটি বড় অংশই শিক্ষার্থী। তাদের কথা মাথায় রেখে বাড়তি অফার থাকছে স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায়। আজ বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) শুরু হবে তিন দিনের স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা। মেলাটি চলবে শনিবার পর্যন্ত।

মেলায় শিক্ষার্থীদের জন্য একটু বেশিই অফার রাখছে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ। স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশের হেড অব প্রোডাক্ট মোহাম্মদ ইফতেখার হোসাইন বলেন, স্মার্টফোন মেলায় যে কেউ স্যামসাং স্মার্টফোন কিনে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত মূল্যছাড় পাবেন। তবে শিক্ষার্থীরা এর চেয়ে বেশিই ছাড় পাবেন।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা স্যামসাং স্মার্টফোন কিনলে এই ছাড়ের পাশাপাশি তাদের পরিচয়পত্র দেখালে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত অতিরিক্ত মূল্যছাড় পেতে পারেন। মেলায় প্ল্যাটিনাম স্পন্সর হিসেবে অংশ নিচ্ছে টেকনো মোবাইল।

ব্র্যান্ডটি জানিয়েছে, তারাও শিক্ষার্থীদের জন্য অতিরিক্ত সুবিধা দেবে। নতুন ইনোভেশনগুলো তারা তুলে ধরবেন।

এ ছাড়াও অন্যান্য অংশগ্রহণকারীরাও শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা সুযোগ রাখার কথা জানিয়েছেন। এবারের মেলার প্ল্যাটিনাম স্পন্সর হিসেবে রয়েছে স্যামসাং ও টেকনো। গোল্ড স্পন্সর হিসেবে রয়েছে সিম্ফনি ও উই। সিলভার স্পন্সর হিসেবে রয়েছে হুয়াওয়ে, নোকিয়া, অপ্পো, ভিভো। টাইটেল স্পন্সর দেশের আইসিটি ও টেলিকম বিষয়ক শীর্ষস্থানীয় নিউজ পোর্টাল টেকশহরডটকম ও পার্টনার রয়েছে এডুমেকার।

মেলায় থাকছে প্ল্যাটিনাম স্পন্সর প্যাভিলিয়ন দুটি, গোল্ড স্পন্সর প্যাভিলিয়ন দুটি এবং সিলভার স্পন্সর প্যাভিলিয়ন চারটি। এ ছাড়াও চারটি প্যাভিলিয়ন ও ১২টি স্টল থাকছে।

মূল্যছাড়ের পাশাপাশি উপহার, গিফট বক্স, র‌্যাফেল ড্র, সেলফি প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা রাখছে ব্র্যান্ডগুলো।

প্রদর্শনীর সব আপডেট ও খবর মেলার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এবং দেশের আইসিটি ও টেলিকম বিষয়ক শীর্ষস্থানীয় নিউজ পোর্টাল টেকশহর ডটকমে পাওয়া যাবে। এ ছাড়াও, প্রতিদিনের আপডেট পাওয়া যাবে মেলার ইভেন্ট পেজে। পেজে ইতিমধ্যে ‘স্মার্ট ওয়ারিওর কুইজ’ কনটেস্ট শুরু হয়েছে। এতে বিজয়ীরা পাবেন আকর্ষণীয় পুরস্কার।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সবার জন্য মেলাটি উন্মুক্ত থাকবে। মেলায় প্রবেশ ফি ২০ টাকা। তবে শিক্ষার্থীরা আইডি কার্ড দেখিয়ে বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারবেন। টিকিট থেকে প্রাপ্ত অর্থ ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসায় দান করা হবে।