ঢাকা, শনিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৮, ৮ বৈশাখ ১৪২৫
BY  ক্রীড়া প্রতিবেদক ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ০১:০৫ | অনলাইন সংস্করণ

তৃতীয় রাউন্ড শেষে তিনি ছিলেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। তবে ওমরা করার জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) চতুর্থ রাউন্ডে খেলা হয়নি মুমিনুল হকের। দেশে ফিরে দেখলেন তিনি আর শীর্ষে নেই। চতুর্থ রাউন্ডে জোড়া সেঞ্চুরি (১৩০ ও ১০৩*) করেন তুষার ইমরান। ৫৫৮ রান করে শীর্ষে সাউথ জোনের এ ব্যাটসম্যান। লিটন দাস আছেন দুইয়ে (৪২৭)। ইস্ট জোনের হয়ে খেলা মুমিনুল হকের অবস্থান তালিকার তিনে (৩৮২ রান)।

আগামীকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে পঞ্চম রাউন্ডের খেলায় বিসিবি নর্থ জোন মাঠে নামবে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোনের বিপক্ষে। রাজশাহীর শহীদ কামারুজ্জামান স্টেডিয়ামে অন্য ম্যাচে প্রাইম ব্যাংক সাউথ জোনের প্রতিপক্ষ ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) পরের দুই রাউন্ডেই খেলবেন মুমিনুল হক। ইস্ট জোনের বাঁ-হাতি এ ব্যাটসম্যানের সামনে তাই সুযোগ থাকছে আবারও শীর্ষে ওঠার। তবে মুমিনুল জানালেন, ব্যক্তিগত অর্জন নিয়ে তিনি ভাবছেন না; বরং তার লক্ষ্য দলকে চ্যাম্পিয়ন করা। দলের জয়ে অবদান রাখতে চান বলেই গতকাল সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন প্রতিভাবান এই ব্যাটসম্যান।

মুমিনুল বলেন ‘একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে সব সময় ইচ্ছে থাকে কোনো আসরে বড় বড় স্কোর করার। অনেক বেশি রান করার ইচ্ছে আমারও আছে। সেই চেষ্টাও করব। তবে সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো, দল হিসেবে আমাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার খুব ভালো সম্ভাবনা আছে। একটা দল যখন চ্যাম্পিয়ন হবে, তখন দেখবেন যে তালিকায় তাদের ব্যাটসম্যানরাই উপরে থাকবে।’

বড় দৈর্ঘ্যরে ক্রিকেটে তুষার ইমরান কেন এতটা সফল, তা বেশ ভালোই জানেন মুমিনুল। বাংলাদেশের একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে ১০ হাজার রান করেছেন তিনি। সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি (২৮) তার। এমনকি গতবার এক মৌসুমে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডও করেছেন ৩৪ বছর বয়সী ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান। তুষার ইমরানের সাফল্যের রহস্য জানাতে গিয়ে মুমিনুল বলেন, ‘উনি (তুষার) চারদিনের খেলার ধরনটা খুব ভালো বোঝেন। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো, সেশন বাই সেশন চিন্তা করে খেলেন। এ জন্য মনে হয় চারদিনের ম্যাচে তিনি খুব সফল।’

২০ জুন পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যাবে বাংলাদেশ। টেস্ট সিরিজ দিয়ে শুরু হবে টাইগারদের সফর। শুধু টেস্ট খেলা মুমিনুলের জন্য বিসিএলই তাই টেস্ট প্রস্তুতির আদর্শ মঞ্চ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরকে পাখির চোখ করেছেন বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। বিসিএলে খেলে নিজেকে পুরোপুরি প্রস্তুত করে নিতে চান তিনি। মুমিনুল বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজ যাওয়ার আগে হয়তো বিসিএলই শেষ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট। টেস্ট যেভাবে খেলি, ওই মানসিকতা নিয়েই খেলার চেষ্টা করব। কন্ডিশনের ব্যাপারটা হলো, আপনি যদি কঠিন মনে করেন, তা হলে কঠিন। আমার কাছে মনে হয়, আমরা প্রস্তুতি নিয়ে যাব। আশা করি ভালো কিছু হবে।’

নিদাহাস ট্রফি শেষে জাতীয় দলের বেশ কয়েকজন তারকা ক্রিকেটার খেলছেন বিসিএলে। শেষ দুই রাউন্ড তাই আরও বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে বলেই মনে করছেন ইস্ট জোনের ব্যাটসম্যান মুমিনুল। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় লড়াই হবে। একটু উত্তেজনা কাজ করছে। সবাই খেললে মনোযোগ দিয়ে খেলে, সিরিয়াস থাকে অনেক। জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা যখন খেলে, অনেক মনোযোগ দিয়ে খেলে। বাকি ক্রিকেটাররাও সিরিয়াস থাকে ম্যাচ নিয়ে।’

চতুর্থ রাউন্ড শেষে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে নর্থ জোন। দুইয়ে থাকা ইস্ট জোনের সংগ্রহ ৩৯। সাউথ জোন রয়েছে তৃতীয় স্থানে (৩৮)। সেন্ট্রাল জোন রয়েছে টেবিলের তলানিতে (২৯)।