ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

যেভাবে ফাইনালে ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া

http://www.dhakatimes24.com/2018/07/12/88573/যেভাবে-ফাইনালে-ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া
BYক্রীড়া প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস

ফিফা বিশ্বেকাপের ২১তম আসরে ৩২ দলের যুদ্ধে অবশেষে টিকে রইলো ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া। নানা ঘটন-অঘটনের এই বিশ্বকাপেনতুন অনেক কিছুরই জন্ম দিল। টুর্নামেন্টের হট ফেভারিট দলগুলোর বিদায় ও নতুনদের আগমন সবকিছু মিলিয়ে এই আসরটায় যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা। তবে সবকিছু ছাড়িয়ে ১৫ জুলাই মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে শিরোপার যুদ্ধে শক্তিশালী ফ্রান্সের বিপক্ষে লড়বে নবীন ক্রোয়েশিয়া।

এক নজরে যেভাবে ফাইনালে উঠলো ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া-

বিশ্বকাপের মত বিগ আসরে ফাইনালে আসার পথ দুই দলের জন্যই ছিল অনেক কঠিন। তবে সব বাধা কাটিয়ে জয় দিয়েই ফাইনালের টিকিট পেল ইউরোপের দুই দল।

গ্রুপ পর্ব-

গ্রুপ পর্বের শুরুটা খুব একটা ভালো করতে পারেনি ফ্রান্স। নিজেদের প্রথম ম্যাচে দুর্বল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অনেক কষ্টে ১-০ গোলের জয় দিয়ে আসর শুরু করে ফরাসিরা। তারপরের ম্যাচেও পেরুর বিপক্ষে ফের কষ্টার্জিত জয়। সেই ব্যবধান টা ১-০। আর গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ডেনমার্ককেতো হারাতেই পারেনি তারা। ড্যানিশদের বিপক্ষে গোল শূন্য ড্র নিয়েইদ্বিতীয় রাউন্ডে যায় দিদিয়ের দেশমের দল।

অপরদিকে ‘ডি’ গ্রুপে খেলা ক্রোয়েশিয়া শুরু থেকেই সবাইকে চমকে দেয়। প্রথম ম্যাচে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে জয়। দ্বিতীয় ম্যাচে তো টুর্নামেন্ট ফেভারিট দল আর্জেন্টিনাকে কোন চান্সই দিল না তারা। মেসিদের ৩-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারায় মদ্রিচরা। আর গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে আইসল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে গ্রুপ সেরা হয়ে উঠে নক-আউট পর্বে।

দ্বিতীয় রাউন্ড-

প্রথম রাউন্ডে কষ্ট করে জিতলেও দ্বিতীয় রাউন্ডে নিজেদের গতি দেখিয়ে দেয় ফিরাসিরা। গ্রিজম্যান-এমবাপ্পের গতিতে আর্জেন্টিনাকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে কোয়র্টার নিশ্চিত করে ফ্রান্স। সেই ম্যাচেই শেষ হয় মেসিদের বিশ্বকাপ স্বপ্ন।

অপরদিকে ১৯৯৮ সালে সেমিফাইনাল খেলা ক্রোয়েশিয়াকে পরীক্ষা শুরু হয় শেষ ষোল থেকেই। দ্বিতীয় রাউন্ডে ডেনমার্কের বিপক্ষে ১-১ গোলে সমতা থাকার পর টাইব্রেকারে ৩-২ ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল।

কোয়ার্টার ফাইনাল-

শেষ আটের লড়াই দারুণ ছিল ফরাসিরা। উরুগুয়ে ২-০ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে দিদিয়ের দেশমের দল। অন্যদিকে শেষ আটে স্বাগতিক রাশিয়ার মুখোমুখি হয় ক্রোয়াটরা। সেই ম্যাচে রাশিয়ার বিপক্ষে ২-২ গোলে সমতা থাকার পর টাইব্রেকারে ৪-৩ ব্যবধানে জয় নিয়ে সেমির টিকিট পায় রাকিটিচরা।

সেমিফাইনাল-

সেমিফাইনালে রেড ডেভিলস বেলজিয়ামের মুখোমুখি হয় ফ্রান্স। প্রথম সেমিফাইনালে বেলজিয়ামকে ১-০ গোলেহারিয়ে ১৯৯৮ সালের পর নিজেদের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে ওঠে ফ্রান্স।

আর অন্যদিকে শেষ চারের দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ২-১‍ গোলে বিদায় করে প্রথমবারের মতো বিশ্ব ফুটবলের ফাইনাল মঞ্চে জায়গা করে নেয় ক্রোয়েশিয়া।

শিরোপার জন্য আগামী ১৫ জুলাই মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় মুখোমুখি হবে দুই ফাইনালিস্ট ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়া।

(ঢাকাটাইমস/১২জুলাই/এইচএ)