ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বাংলাদেশের ফেবারিট ভেন্যু কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন

https://www.jagonews24.com/sports/cricket/500434
BYস্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ১৫ মে ২০১৯

কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনের সঙ্গে বাংলাদেশের একটা নাড়ির সম্পর্ক তৈরি হয়েছে ২০০৫ সাল থেকে। রিকি পন্টিংয়ের নেতৃত্বাধীন অস্ট্রেলিয়াকে সেইদিন আশরাফুল-আফতাব আহমেদরা ডুবিয়েছিল চরম লজ্জায়। প্রথমবারেরমত অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। আশরাফুলের সেঞ্চুরিতে সেদিন বাংলাদেশ জিতেছিল ৫ উইকেটের ব্যবধানে।

কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন শুধু অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটাই বাংলাদেশকে উপহার দেয়নি। এখানে খেলতে এসে যেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা নিজ দেশের মাটিতে খেলার স্বাদ পান। সে কারণেই দেখা গেলো, ২০১৭ সালে এই মাঠেই দ্বিতীয়বারের মত খেলতে নেমে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছিল টাইগাররা।

কিউইদের বিপক্ষে এই ম্যাচটিতে ছিল আরও বেশি থ্রিলার। নিউজিল্যান্ডের ছুঁড়ে দেয়া ২৬৬ রানের জবাব দিতে নেমে ১২ রানে ৩ উইকেট এবং ৩৩ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর যখন পরাজয়ের শঙ্কায় ধুঁকছিল বাংলাদেশ, তখনই ক্রিজে দাঁড়িয়ে যান সাকিব আল হাসান এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

দু’জনের ব্যাটে অতিমানকিব দুটি ইনিংস উপহার পেয়েছিল বাংলাদেশ। ২২৪ রানের অসাধারণ এক জুটি। মাকিব-মাহমদউল্লাহ দু’জনই সেঞ্চুরি করলেন। সাকিব ১১৪ এবং মাহমুদউল্লাহ ১০২ রানের ইনিংস খেলে বাংলাদেশকে এনি দিলেন ৫ উইকেটের অবিস্মরণীয় এক জয়।

সেই সোফিয়া গার্ডেনে এবারের বিশ্বকাপেও খেলতে নামবে বাংলাদেশ। তবে এবার প্রতিপক্ষ আর কেউ নয়, স্বাগতিক ইংল্যান্ড। পূর্বের সেই সাফল্যের ধারা এবার বয়ে নিতে পারবে কি না মাশরাফি বিন মর্তুজারা, সেটাই দেখার বিষয়।

ওয়েলসের কার্ডিফ শহরে টাফ নদীর পাড়ে অবস্থিত নয়নাভিরাম স্টেডিয়ামটি। কাউন্টি ক্রিকেটে গ্লেমারগানের হোম ভেন্যু হিসেবে পরিচিত এই স্টেডিয়ামটি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টির পাশাপাশি টেস্ট ম্যাচও আয়োজন করে থাকে কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন।

১৮৫৪ সালে স্টেডিয়ামটির প্রতিষ্ঠা। কিন্তু ক্রিকেট শুরু হয়েছে এই মাঠে ১৯৬৭ সাল থেকে। স্টেডিয়ামটি ক্রিকেটের জন্য ছিল না। কার্ডিফ অ্যাথলেটিক ক্লাবের কাছে এই মাঠের লিজ ছিল ১২৫ বছর। ১৯৯৫ সালে অ্যাথলেটিক ক্লাবের কাছ থেকে কেনার পর ক্রিকেটের জন্যও এই মাঠে আলাদা সেকশন চালু করা হয়। ক্রিকেটের পাশাপাশি এই মাঠে ফুটবল খেলাও অনুষ্ঠিত হতো।

তবে ২০০৭ সালে গ্লেমারগনের ক্রিকেটার মাইক পাওয়েল পাঁজরের ইনজুরিতে পড়ার পর আবেদন করেন, মাঠটাকে শুধু ক্রিকেটের জন্য ব্যবহার করার জন্য। তার সেই আবেদনই গ্রহণ করে নেয়া হয়।

বিশ্বকাপে ১৯৯৯ সালে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় কার্ডিফের। ২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানের জয়ী ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয় এই মাঠেই। এবার এই মাঠে ইংল্যান্ড কি করবে সেটাই দেখার বিষয়।

আইএইচএস/এমএস