ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বিশ্বকাপ জিতবে কে? জ্যোতিষীর গণনায় বেরিয়ে এলো দুই দল

https://www.jagonews24.com/sports/cricket/500482
BYস্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশিত: ১০:১১ এএম, ১৬ মে ২০১৯

২০১৯ বিশ্বকাপ দরজায় দাঁড়িয়ে। এবারের বিশ্বকাপে ফেবারিট কে কিংবা কাদের বিশ্বকাপ জয়ের সম্ভাবনা প্রবল এ নিয়ে হিসেব নিকেশ শুরু হয়ে গেছে ইতোমধ্যে। যার যার দিক থেকে তারা হিসেব করছেন। যেমন একটা হিসেব কষে ফেললেন ভারতের মুম্বাইভিত্তিক বিখ্যাত জ্যোতিষী গ্রিনস্টোন লোবো।

এই লোবোই কদিন আগে ভারতের ক্রিকেট সমর্থকদের মন ভাঙার মতো এক খবর দিয়েছেন। তিনি হিসেব কষে বের করেছেন, বিরাট কোহলির দলের এবার বিশ্বকাপ জয়ের সম্ভাবনা নেই। কারণ বিশ্বকাপ জয়ের জন্য অধিনায়ক কোহলির জন্মসালের সঙ্গে যে গ্রহ-নক্ষত্রের অনুকূলে থাকার কথা ছিল, সেগুলো নেই।

ভারত যদি না-ই জিতে, তবে জিতবে কোন দল? সেটিও লোবো গণনা করে বের করে এনেছেন। এই গণনাটা তিনি করেছেন, বিশ্বকাপ দলের অধিনায়কদের জন্মসালের উপর ভিত্তি করে।

লোবোর হিসেব মতে, এবারের বিশ্বকাপ যে দল জিতবে তাদের অধিনায়কের জন্ম ১৯৮৫ থেকে ১৯৮৭ সালের মধ্যে হতে হবে। এই সময়টায় ইউরেনাস এবং নেপচুন সবচেয়ে শক্তিশালি অবস্থানে ছিল।

এবারের বিশ্বকাপে দলগুলোর অধিনায়কের মধ্যে এই সময়ে জন্ম নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যারন ফিঞ্চ, ইংল্যান্ডের ইয়ন মরগান আর পাকিস্তানের সরফরাজ আহমেদ।

তবে লোবো মনে করছেন, এর মধ্যে সরফরাজকে বাদ দিতে হবে। কারণ পাকিস্তান অধিনায়ক ইতোমধ্যেই বড় একটি ট্রফি জিতে ফেলেছেন (২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি)।

তাহলে এবার বিশ্বকাপটা হাতে তুলতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া কিংবা ইংল্যান্ড। এই দুই দলের মধ্যে আবার ভালো অবস্থানে আছে ইংল্যান্ড। কেননা অস্ট্রেলিয়া দলে গত বিশ্বকাপজয়ী দলের পাঁচজন সদস্য আছে, এটা তাদের ভাগ্যের বিপক্ষে যেতে পারে।

সেক্ষেত্রে ইংল্যান্ডের ইয়ন মরগান আছেন গ্রহ-নক্ষত্রের হিসেবে এগিয়ে। আসলে লোবো বিশ্বাস করেন, আসন্ন বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হবে স্বাগতিক দলই।

ভারতের তবে কি হবে? কোনো সম্ভাবনাই নেই? নিজের দেশের একটা উপায় দেখছেন লোবো। তার মতে, যদি কোহলি কোনো কারণে ইনজুরিতে পড়ে যান, তবে নেতৃত্ব দেবেন রোহিত। তখন ভারতের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা থাকবে। কেননা রোহিতের জন্মসাল গ্রহ-নক্ষত্রের অনুকূলে।

আর বিশ্বকাপে পাকিস্তান-ভারত লড়াইয়ের মধ্যেও বরাবরের মতো ভারতই জিতবে বলে ভবিষ্যতবাণী করেছেন মুম্বাই ভিত্তিক এই জ্যোতিষী। দেখা যাক, তার গণনা কতটুকু সত্য হয়!

এমএমআর/জেআইএম