ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬

আম্পায়ারকে গালি দিয়েও অল্পে বেঁচে গেলেন ইংলিশ ওপেনার

https://www.jagonews24.com/sports/cricket/513096
BYস্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশিত: ১২:৪৫ পিএম, ১২ জুলাই ২০১৯

বৃহস্পতিবার বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়ে ২৭ বছর পর ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে ইংল্যান্ড। স্বাগতিকদের এ জয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচ হিসেবে ক্রিস ওকস নির্বাচিত হলেও, সম্যক ভূমিকা ছিলো ওপেনার জেসন রয়েরও।

অস্ট্রেলিয়ার করা ২২৩ রানের লক্ষ্যটি ৩২.১ ওভারে পেরিয়ে যাওয়ার পথে, মাত্র ৬৪ বলে ৮৫ রানের এক ঝড়ো ইনিংস খেলেন রয়। তার সামনে ছিলো সেঞ্চুরির সম্ভাবনা। কিন্তু তা হয়নি। তবে রয়ের কোনো ভুল নেই। কারণ আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তে আউট হয়েছিলেন তিনি।

ঘটনা ইংল্যান্ডের ইনিংসের ২০তম ওভারের। প্যাট কামিন্সের করা সে ওভারের চতুর্থ ডেলিভারিটি ছিল বাউন্সার। কিন্তু লাইন ঠিক না থাকায় বেরিয়ে যাচ্ছিল লেগসাইড দিয়ে। পুল শট খেলার ব্যর্থ চেষ্টার করেন রয়। বল চলে যায় তার গ্লাভসের পাশ দিয়ে।

কিন্তু কামিনসের জোরালো আবেদনে সাড়া দিয়ে বসেন আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা। এ সিদ্ধান্ত জানাতে বেশ কিছু সময় নেন তিনি। পরে আউটের জন্য আঙুল তুললে তা পুরোপুরি অবাক করে দেয় রয়কে। সঙ্গে সঙ্গে প্রায় চিল্লিয়ে ওঠেন আম্পায়ারের উদ্দেশ্যে, মুখ দিয়ে উচ্চারণ করেন লেখার অযোগ্য এক গালি। শুধু তাই নয়, আম্পায়ার আউট দেয়ার পরেও, উইকেট ছেড়ে যেতে চাননি তিনি।

এ ঘটনার পর ধারণা করা হচ্ছিলো হয়তো বড় কোনো শাস্তি অপেক্ষা করছে ইংলিশ ওপেনারের জন্য। হতে পারে কয়েক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞাও। মহা গুরুত্বপূর্ণ ফাইনালের আগে যা কি-না ইংল্যান্ডের জন্য বিশাল ক্ষতির কারণ হতে পারতো।

তবে শেষপর্যন্ত তা হয়নি। গালি দিয়েও অল্পেই বেঁচে গেছেন জেসন রয়। ম্যাচ শেষে নিজের ভুল স্বীকার করে নেয়ায় আনুষ্ঠানিক শুনানির প্রয়োজন হয়নি। তবে বড় শাস্তিও দেননি ম্যাচ রেফারি রঞ্জন মাদুগালে। রয়ের ম্যাচ ফির ৩০ শতাংশ জরিমানা, দুইটি ডিমেরিট পয়েন্ট ও ভবিষ্যতের জন্য সতর্কবার্তা দিয়েই ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

এসএএস/এমকেএইচ