ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ধোনিকে সেই বুদ্ধিটা দিয়েছিলেন শচিনই

https://www.jagonews24.com/sports/cricket/571628
BYস্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক প্রকাশিত: ০৯:৫২ পিএম, ০৬ এপ্রিল ২০২০

২০১১ সালের বিশ্বকাপে ইন ফর্ম যুবরাজ সিংকে পেছনে ঠেলে পাঁচ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ভারতীয় অধিনায়কের সেই সিদ্ধান্তটা ছিল ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরেই লিখা হয়ে গেছে।

তবে বিশ্বকাপ জয়ের ৯ বছর পর অবাক করা এক তথ্য জানালেন শচিন টেন্ডুলকার। জানালেন, ধোনিকে ওপরে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর বুদ্ধিটা দিয়েছিলেন তিনিই।

ওয়াংখেড়েতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সে ফাইনালে ২৭৫ রান তাড়া করতে নেমে ১১৪ রানে ৩ উইকেট হারিয়েছিল ভারত। এমন অবস্থায় সবাইকে অবাক করে দিয়ে পাঁচ নম্বরে নেমে পড়েন ধোনি।

পরের ইতিহাস তো সবারই জানা। চতুর্থ উইকেটে গৌতম গম্ভীরের সঙ্গে ১০৯ রানের জুটিতে ম্যাচটা হাতের মুঠোয় নিয়ে আসেন ধোনি। গম্ভীর ৯৭ করে ফিরলেও ধোনি শেষ পর্যন্ত ৯১ রানে অপরাজিত থেকে দলকে বিশ্বকাপ জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন।

লঙ্কানদের কোয়ালিটি স্পিনের বিপক্ষে মাঝের ওভারগুলোও বাঁহাতি গম্ভীরের সঙ্গে ডানহাতি ধোনির এই কম্বিনেশন চেয়েছিলেন শচিনই। তাই বাঁহাতি যুবরাজকে পরে নামানোর সিদ্ধান্ত হয়। শচিন বলেন, ‘গম্ভীর দারুণ ব্যাটিং করছিল, তার সঙ্গে ধোনির মতো একজন দরকার ছি যে কিনা স্ট্রাইক রোটেট করতে পারবে।’

শচিন প্রথমে ড্রেসিংরুমে শেবাগের সঙ্গে বুদ্ধিটা শেয়ার করেন। পরে বলেন ধোনিকে। শচিনের ভাষায়, ‘আমি এমএসকে (ধোনি) এই কৌশলটার কথা বিবেচনা করতে বলি। সে তখন কোচ (গ্যারি) কারস্টেনের কাছে যায়, যিনি বাইরে বসা ছিলেন। পরে গ্যারি ভেতরে আসেন, আমরা চারজনই এটা নিয়ে কথা বলি। গ্যারিও সম্মতি দেয় যে, এটা এখন করাটা সঠিক সিদ্ধান্ত হবে। এমএসও রাজি হয় এবং ব্যাটিং অর্ডার বদলে ওপরে চলে আসে।’

এমএমআর/জেআইএম