ঢাকা, সোমবার, ২০ আগস্ট ২০১৮, ৫ ভাদ্র ১৪২৬
BY  স্পোর্টস ডেস্ক ২১ জুলাই ২০১৮, ২০:৩০ | অনলাইন সংস্করণ
বিদেশে ফ্রাঞ্চাইজি লিগে খেলতে গিয়ে ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান। আর এই ইনজুরির কারণে দেশকে সেভাবে সার্ভিস দিতে পারছেন না কাটার মাস্টার। তাই আগামী দুই বছর বিদেশি কোনো লিগে তাকে খেলার অনুমতি দেবে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এমনটিই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

২০১৫ সালে জাতীয় দলে অভিষেকের পর নান্দনিক পারফরম্যান্সে আলোচনায় ঝড় তুলেছেন সাতক্ষীরার এই ক্রিকেটার। যে কারণে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল), ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে খেলার প্রস্তাব পান উদীয়মান এই ক্রিকেটার। আর ফ্রাঞ্চাইজি সেই টুর্নামেন্টে খেলতে গিয়ে ইনজুরিতে আক্রান্ত হন মোস্তাফিজ।

বিদেশ থেকে বয়ে আনা সেই চোটের কারণে দেশের জার্সিতে খেলতে পারেননি তিনি। জাতীয় দলের ক্রিকেটার হিসেবে তার কাছ থেকে যে সার্ভিস পাওয়ার কথা ছিল তা তিনি দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। যে কারণে আগামী দুই বছর বিদেশি কোনো লিগে মোস্তাফিজকে খেলার অনুমতি দেয়া হবে না। এমনটিই বলছেন বিসিবি সভাপতি নাজুল হাসান পাপন। ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি বলছেন, আগামী দুই বছর অন্য কোনও দেশের টি-টোয়েন্টি লিগে খেলতে পারবে না মোস্তাফিজুর রহমান। আমরা ওর বিরুদ্ধে হয়তো এতটা কড়া হতাম না। কিন্তু পরিস্থিতি আমাদের বাধ্য করেছে। বিদেশে টি-টোয়েন্টি লিগ থেকে চোট নিয়ে ফেরায় ওকে গুরুত্বপূর্ণ সময় জাতীয় দলের প্রয়োজনে পাওয়া যায়নি। বারবার ওর জন্য আমরা রিহ্যাবের ব্যবস্থা করেছি।

কাউন্টি ক্রিকেটে সাসেক্সের হয়ে খেলতে গিয়ে কাঁধের ইনজুরিতে আক্রান্ত হন কাটার মাস্টার। এরপর সর্বশেষ আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলতে গিয়ে ফের চোটাক্রান্ত হন ২২ বছর বয়সী এই পেস বোলার। গত বছর গোড়ালির চোটের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে খেলতে পারেননি তিনি।

বিদেশে ফ্রাঞ্চাইজি লিগে খেলে বারবার চোট নিয়ে দেশে ফেরা মোস্তাফিজ প্রসঙ্গে বিসিবি সভাপতি বলেন, বিসিবি তাকে সেবা-শুশ্রূষা করে সুস্থ করে তুলবে। আর সে বিদেশে খেলতে গিয়ে ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়ে আসবে এটা হতে পারে না। আমি তাকে বলে দিয়েছি আগামী দুই বছর বিদেশি কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট খেলতে না যাওয়ার জন্য।

গত মার্চে ভারতের বিপক্ষে নিদাহাস ট্রফিতে শেষবার বাংলাদেশের হয়ে খেলেছিলেন কাটার মাস্টার। বারবার ইনজুরিতে আক্রন্ত হওয়ায় মোস্তাফিজ। টেস্ট খেলতে চায়ন। এমনটি জানিয়ে বিসিবির সভাপতি বলেন, মোস্তাফিজ টেস্ট খেলতে চায় না। এটা সে সরাসরি মুখে বলে না। কিন্তু টেস্ট খেলার কথা উঠলেই ও বিভিন্ন উপায়ে এড়িয়ে যেতে চায়। তার কারণ ও বেশির ভাগ সময়ই চোট নিয়ে খেলে। টেস্ট খেললে আরও বেশি করে চোট পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।